ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

দশমীতে মন্দিরে বিষাদের ছায়া

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ৫, ২০২২
দশমীতে মন্দিরে বিষাদের ছায়া

বরিশাল: বিজয়া দশমীতে বরিশালের মন্দিরে মন্দিরে বিরাজ করছে বিষাদের ছায়া।

বুধবার (৫ অক্টোবর) সকাল ৯টা ৫৭ মিনিটের মধ্যে দশমী বিহিত পূজা ও দর্পণ বির্সজনের মধ্য দিয়ে এবারের দুর্গোৎসবের মূল পর্ব শেষ হয়েছে।

বিকেল থেকে সন্ধ্যার মধ্যে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে পাঁচ দিনব্যাপী শারদ উৎসবের আনুষ্ঠানিকতা।

এর আগে সকালে ভক্তরা বিভিন্ন মণ্ডপগুলোতে সমবেত হন। সকাল ৭টা থেকে সদর রোড জগন্নাথ দেবের মন্দিরে ভক্ত ও দর্শনার্থীদের সমাগম ঘটে। ভক্তরা চণ্ডি পাঠ ও অঞ্জলি দেন। গ্রহণ করেন শান্তি জল। সকাল ৮টায় পূজা শুরু হয়ে ১০টার মধ্যে শেষ হয়। এ সময় ভক্তরা দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় প্রার্থনা করেন বলে জানান নগরের সদর রোডের জগন্নাথ দেবের মন্দিরের পুরোহিত পলাশ চক্রবর্তী।

বিকেলে মন্দিরে মন্দিরে আয়োজন করা হয় সিঁদুর খেলার। সনাতন ধর্মাবলম্বী বিবাহিত নারীরা মেতে উঠেন সিঁদুর খেলায়। সন্ধ্যার মধ্যে দেবী বিসর্জনের মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজার সব আনুষ্ঠানিকতা শেষ করার নির্দেশনা দিয়েছে পুলিশ প্রশাসন।

এদিকে বরিশাল নগরের কীর্তনখোলা নদীর লঞ্চঘাট সংলগ্ন খেয়াঘাটে বিসর্জনের জন্য আগাম প্রস্তুতি সম্পন্ন করে সিটি করপোরেশন। দেবী বিসর্জনকে ঘিরে ওই এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মতে, এ বছর দেবী দুর্গা হাতিতে চড়ে মর্তে আসেন এবং কৈলাশে ফিরছেন নৌকায় চড়ে। এবার বরিশাল জেলায় ৬০০টি ও মহানগরে ৪৫টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়।

এদিকে মঙ্গলবার (০৪ এপ্রিল) সন্ধ্যায় বরিশালের বিভিন্ন পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করেন প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক।  

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. নুরুল ইসলাম সরকার, বরিশালের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শাহ মো. রফিকুল ইসলাম, বরিশাল মেট্রোপলিটনের অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার ফজলুল করীম, বরিশাল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মনিরুজ্জামান, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান মধুসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা।

এদিন প্রথমে বরিশাল নগরের শ্রী শ্রী শংকর মঠ পূজামণ্ডপে পরিদর্শনে গেলে পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি কিশোর কুমার দে, সাধারণ সম্পাদক সুবোধ দাস শাওনসহ নেতারা প্রতিমন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। পরে বরিশাল নগরের রামকৃষ্ণ মন্দির, শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের মন্দিরসহ বেশ কয়েকটি মন্দির পরিদর্শন করেন প্রতিমন্ত্রী।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী পূজা উদযাপন কমিটির নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন ও হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের শারদীয় শুভেচ্ছা জানান।

বাংলাদেশ সময়: ২১২০ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৫, ২০২২
এমএস/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa