ঢাকা, রবিবার, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

বিদ্যুৎ নেই, পানির জন্য হাহাকার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪২ ঘণ্টা, অক্টোবর ৪, ২০২২
বিদ্যুৎ নেই, পানির জন্য হাহাকার

সাভার, (ঢাকা): বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের কারণে রাজধানীর মতো সাভারেও দুপুর থেকে নেই সরবরাহ। এতে ভাটা পড়েছে পানির সরবরাহে।

হাহাকার লেগেছে স্থানীয়দের মধ্যে।

মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) রাত ৯টার দিকে সাভার থানা স্ট্যান্ড তালবাগ এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, পানির নিতে আসাদের দীর্ঘ লাইন। কেউ বালতি, বোতল, জগ নিয়ে অপেক্ষা করছেন। কারও হাতে কলসি, ছোট ড্রাম। শত শত মানুষ দীর্ঘ সময় ধরে লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন। টাওয়ারে জেনারেটরের মাধ্যমে পানি তুলে পাইপের মাধ্যমে সরবরাহ করা হচ্ছে।

তালবাগ এলাকার বাসিন্দা মো. জাহিদ বলেন, দুপুর ১টায় বিদ্যুৎ গেছে। আমাদেরসহ আশপাশের কোনো বাসায় পানি নেই। ৩টার দিকে পানি শেষ হয়। ৫টার দিকে টাওয়ারে আসি পানি নিতে। ততক্ষণে বিশাল লাইন পড়ে গেছে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত জাহিদ পানি নিতে পারেননি।

অনেকেই জানান, ছোট-বড় ঘর-বাড়িগুলোয় পানির জন্য হাহাকার লেগেছে। ছোট-ছোট ছেলে মেয়ে কষ্ট পাচ্ছে। বয়স্করাও বিপাকে পড়েছেন।

মিতালি নামের এক পোশাক শ্রমিক রিকশা যোগে দুটি বালতি নিয়ে এসেছেন পানি নিতে। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, কারখানা ছুটি হয়েছে ৫টার দিকে। বাসায় গিয়ে দেখি পানি নেই। পানি না থাকলে তো রান্নাও করতে পারবো না। পাশের বাসার এক ভাবি বললো এখানে পানি পাওয়া যাচ্ছে, তাই আমি আর আমার বোন রিকশা নিয়ে পানি নিতে এসেছি। যে বড় সিরিয়াল পানি কখন পাবো বুঝতে পারছি না।

সাভার সিটি টাওয়ার নামে একটি ভবন থেকে এলাকার লোকজনকে পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। ভবনের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা মো. জাহিদুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের এখানে জেনারেটর আছে। বিকাল ৩টা থেকেই অনেকে এসে পানি নিয়ে যাচ্ছে। আলাদা একটি লাইন করে দেওয়া হয়েছে পানির। বিদ্যুৎ না আসা পর্যন্ত আমরা পানি সরবরাহ করবো।

স্থানীয় কর্তাব্যক্তিরা জানিয়েছেন, হঠাৎ এমন সমস্যায় এলাকার সবাই-ই বিপাকে পড়েছেন। স্থানীয়ভাবে সবাই সবাইকে সাহায্য করার চেষ্টা করছে। সাভার সিটি টাওয়ার থেকে পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। বিদ্যুৎ না আসা পর্যন্ত এটি চলতে থাকবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪০ ঘণ্টা, অক্টোবর ৪, ২০২২
এসএফ/এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa