ঢাকা, রবিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

চকচকে চালে পুষ্টি থাকে না: খাদ্যমন্ত্রী

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩০৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ১, ২০২২
চকচকে চালে পুষ্টি থাকে না: খাদ্যমন্ত্রী

ঢাকা: এক গবেষণা প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, প্রতি ১০০ মেট্রিক টন চাল পোলিশ করলে পাঁচ মেট্রিক টন চাল অপচয় হয়, যার পুরোটাই চালের পুষ্টির অংশ। মনে রাখতে হবে চকচকে চালে পুষ্টি থাকে না।

 


তিনি বলেন, যে চাল খেয়ে জীবনধারণ করতে হয় তাতে পুষ্টি না থাকলে জনগণ অপুষ্টিতে ভুগবে। এটা হবে আমাদের জন্য পীড়াদায়ক। এক শ্রেণির ব্যবসায়ীরা চাল ছেঁটে পোলিশের মাধ্যমে চকচকে করে বাজারজাত করেন। পোলিশ করা চাল খাবো না- এ আন্দোলন গড়ে তুলতে নিউট্রেশন ক্লাবের সদস্যদের এগিয়ে আসতে হবে।

শনিবার (১ অক্টোবর) রাজধানীতে শের-ই- বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রের অডিটোরিয়ামে ‘আন্তর্জাতিক নিউট্রিশন অলিম্পিয়াড ২০২২' এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে খাদ্য মন্ত্রণালয় দেশের সব নাগরিকের জন্য নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে কাজ করছে। প্রতিটি জেলায় নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের কার্যক্রম চলমান আছে। পাশাপাশি তরুণ প্রজন্মকে পুষ্টি সচেতন করতে তাদের সচেতনতা বাড়াতে কাজে সম্পৃক্ত করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, অপুষ্টি রোধে নিউট্রিশন ক্লাবের সদস্যরা বিশেষ করে তরুণরা কার্যকর ভূমিকা পালন করতে পারেন। তরুণদের আগামীর ভবিষ্যৎ উল্লেখ করে তাদের সৃজনশীলতা এবং নেতৃত্বদানের সক্ষমতা বাড়ানোর জন্য খাদ্য মন্ত্রণালয় সবধরনের সহায়তা করবে।

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. ইসমাইল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মূখ্য সমন্বয়ক  জুয়েনা আজিজ, শের-ই- বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. শহিদুর রশিদ চৌধুরী, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আব্দুস সাত্তার মণ্ডল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি ও খাদ্য বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের প্রফেসর ড. নাজমা শাহীন, গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ইম্প্রুভড নিউট্রেশন (গেইন) এর কান্ট্রি ডিরেক্টর ডা. রুদাবা খন্দকার।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এফপিএমইউ’র মহাপরিচালক মো. শহীদুজ্জামান ফারুকী।

এছাড়াও নিউট্রিশন অলিম্পিয়াডের উদ্যোক্তা বিবিআইডি ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শহীদ উদ্দিন আকবর অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।

অনুষ্ঠানে বক্তরা বলেন, বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে কৃষির উৎপাদন কমছে, জমির পরিমাণ কমছে কিন্তু মানুষ বাড়ছে। আর এতে খাদ্য ও পুষ্টি হুমকির মুখে পড়ছে। এ অবস্থার পরিবর্তনে কৃষির ট্রান্সফরমেশন প্রয়োজন। এ সময় বক্তারা ভোক্তাকে শুধু উদরপূর্তি না করে পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।

পরে মন্ত্রী দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক নিউট্রিশন অলিম্পিয়াড উদ্বোধন করেন ও বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন। দুদিনের নিউট্রিশন অলিম্পিয়াডে তরুণ শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে ওয়ার্কিং সেশন, নিউট্রিশন কম্পিটিশন, সেমিনার, ডিবেট, পেইন্টিং ও ইনোভেশন ল্যাব কার্যক্রম।  

এবারের আন্তর্জাতিক নিউট্রিশন অলিম্পিয়াডে ৩০টি দেশের প্রতিনিধিরা ভার্চ্যুয়ালি অংশ নেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৩০৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ০১, ২০২২
এমআইএইচ/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa