ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

সিলেটে মামলা প্রত্যাহার দাবিতে সড়ক অবরোধ শ্রমিকদের

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২
সিলেটে মামলা প্রত্যাহার দাবিতে সড়ক অবরোধ শ্রমিকদের

সিলেট: নেতাদের নামে মামলার প্রতিবাদে সিলেট নগরের সব প্রবেশদ্বার সন্ধ্যা থেকে অবরোধ করে রেখেছেন পরিবহন শ্রমিকরা।
 
বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সোয়া ৭ টার দিকে শ্রমিকরা রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে এবং এলোপাতাড়ি গাড়ি রেখে অবরোধ শুরু করেন।

অবরোধের কারণে তীব্র যানজটে যাত্রীরা ভোগান্তিতে পড়েছেন।
 
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিটের দিকে শ্রমিকরা হঠাৎ করে স্লোগান দিয়ে নগরের বিভিন্ন পয়েন্টে সড়ক অবরোধ করেন। এতে করে যানজটে আটকা পড়ে বিভিন্ন প্রকার যানবাহন। এমনকি রোগীবাহী অ্যাম্বুলেন্সও চলাচল করতে পারছে না।
 
নগরের টিলাগড় এলাকার কাওসার আহমদ বলেন, সন্ধ্যা থেকে রাত পৌনে ৯টা পর্যন্ত শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করে রেখেছে। এতে করে সিলেট-তামাবিল সড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়েছে। ভোগান্তিতে পড়া যাত্রীরা পয়ে হেটে শহরে প্রবেশ করতে দেখা যায়। এসময় শ্রমিকরা সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেন।   
একইভাবে নগরের আখালিয়া, জিতু মিয়ার পয়েন্ট, চন্ডিপুল, সুবহানীঘাট, মেন্দিবাগ, হুমায়ন রশিদ চত্বর, নয়াসড়ক, শাহি ঈদগাহ, আম্বরখানা, সুরমা মার্কেট পয়েন্টেও সড়ক অবরোধ করে রাখেন শ্রমিকরা।  
 
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত কয়দিন আগে শ্রমিক অবরোধ চলাকালে গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় এক চালক বাদি হয়ে নগরের দক্ষিণ সুরমা থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় ৪ শ্রমিকনেতার নাম উল্লেখ করা হয়। পক্ষান্তরে শ্রমিক নেতারাও আরেকটি অভিযোগ দায়ের করেন। এই মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করেন।
 
সিলেট সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হাজি ময়নুল ইসলামের মোবাইল ফোনে কল দিয়ে জানতে চাইলে সংগঠনের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মো. নুর মিয়া ফোনকল রিসিভ করেন।
 
তিনি বলেন, পুলিশী হয়রানীর প্রতিবাদে গত ১৩ সেপ্টেম্বর অনির্দিষ্টকাল ধর্মঘট ডেকে প্রশাসন ও আওয়ামী লীগ নেতাদের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে স্থগিত করি। কিন্তু পরদিন ১৪ সেপ্টেম্বর সাহাব উদ্দিন নামে সংগঠন থেকে বহিষ্কৃত এক ‘ইমা লেগুনা’ চালককে দিয়ে এসএমপির দক্ষিণ সুরমা থানায় মামলা করায় পুলিশ। ওই মামলায় শ্রমিক সংগঠনের চার নেতার নামোল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৩৫ জনকে আসামি করা হয়। এজাহারনামীয়দের মধ্যে রয়েছেন সিলেট সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হাজি ময়নুল ইসলাম, সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়ন ৭০৭-এর সভাপতি মো. জাকারিয়া, দক্ষিণ সুরমার চন্ডিপুল মাইক্রোবাস স্ট্যান্ড সভাপতি আওলাদ হোসেন ও ইমা লেগুনা ১৩২৬-এর সভাপতি মঈন উদ্দিন।
 
তিনি বলেন, আমরা চাই মামলার ফাইনাল রিপোর্ট দেওয়া হোক এবং পুলিশ কমিশনারকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হোক। নয়তো সড়ক অবরোধ করে তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।
 
বাংলাদেশ সময়: ২১৩০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২
এনইউ/এসএ
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa