ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

স্ত্রী ছেড়ে চলে যাওয়ায় ঘটককে কুপিয়ে হত্যা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২
স্ত্রী ছেড়ে চলে যাওয়ায় ঘটককে কুপিয়ে হত্যা

টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে বিয়ের এক বছর পর স্ত্রী ছেড়ে চলে যাওয়ায় ঘটক আব্দুল জলিল (৬০) নামে এক বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার দিগড় ইউনিয়নের মানাজি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আব্দুল জলিল ওই এলাকার মৃত আসান আলীর ছেলে। তিনি ইলেকট্রনিক্স দোকানের কর্মচারী হিসেবে কাজ করতেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, নিহত আব্দুল জলিল মাঝে মধ্যে ঘটকালির কাজ করতেন। একই গ্রামের স-মিলের শ্রমিক মো. আলমাসের (২০) বিয়ের ঘটক ছিলেন তিনি। তার বিয়ের বয়স প্রায় বছর খানেক হয়ে গেছে। ছয় মাস আগে বনিবনা না হওয়ায় আলমাসের স্ত্রী বাপের বাড়ি চলে যান।

গত বৃহস্পতিবার দুপুরে আলমাসের দাদি রাহাতন বেওয়ার সঙ্গে ঘরের ভেতর চেয়ারে বসে কথা বলছিলেন জলিল। তাকে দেখে অন্য ঘর থেকে দা বের করে তার মাথায় ও ঘাড়ে কোপ দেন আলমাস। এতে ঘটনাস্থলেই জলিলের মৃত্যু হয়। পরে আলমাস দৌঁড়ে পালিয়ে যান। স্ত্রী ছেড়ে চলে যাওয়ার রাগ ঝাড়তেই এ কাণ্ড ঘটান আলমাস।

ঘটনার পর থেকে আলমাসসহ তার পরিবারের সদস্যরা পলতাক রয়েছেন। তিনি ওই গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে।

ঘাটাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজহারুল ইসলাম সরকার বাংলানিউজকে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে স্ত্রী চলে যাওয়ায় রাগে ও ক্ষোভে ঘটক জলিলকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

বাংলাদেশ সময়: ২১১৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২
এফআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa