ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ আশ্বিন ১৪২৯, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

‘ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার ইচ্ছে ছিল বঙ্গবন্ধুর’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৩৯ ঘণ্টা, আগস্ট ১৫, ২০২২
‘ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার ইচ্ছে ছিল বঙ্গবন্ধুর’

ঢাকা: জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন অবিসংবাদিত নেতা। তাঁর সঙ্গে কারও তুলনা নেই।

বঙ্গবন্ধু এবং তাঁর পরিবারের সদস্যদের ষড়যন্ত্রকারীরা নিশংসভাবে হত্যা করেছে। ওই ষড়যন্ত্রকারীদের ঘৃণা জানাই।

চুন্নু বলেন, তিনি স্বাধীনতার জন্য নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন। তাই স্বাধীন সার্বভৌম একটি দেশ পেয়েছি। ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার ইচ্ছে ও বাসনা ছিল বঙ্গবন্ধুর। তাই সরকারে প্রতি আহ্বান করব দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি কমিয়ে সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে আনতে। আমরা এ দেশে হানাহানি মারামারি হত্যাযজ্ঞ চাইনা। আমারা সুখী সমৃদ্ধশালী একটি বাংলাদেশ চাই।

সোমবার (১৫ আগস্ট) বিকেলে কাকরাইলে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মিলাদ এবং দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমাদের নেতা জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সাবেক সফল রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাকে নতুন বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য ৬৮ হাজার গ্রামবাংলার উন্নয়ন করেছেন।

এ সময় বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি স্বরণে আরও বক্তব্য রাখেন- জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য ফকরুল ইমাম এমপি, মো. সফিকুল ইসলাম সেন্টু, অ্যাড. রেজাউল ইসলাম ভূঞা, জহিরুল ইসলাম জহির, মোস্তফা আল মাহমুদ, চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা- অধ্যাপিকা রওশন আরা মান্নান, এমপি, ভাইস চেয়ারম্যান মো. আরিফুর রহমান খান, জাহাঙ্গীর আলম পাঠান, আমির উদ্দিন আহমেদ ডালু, যুগ্ম মহাসচিব গোলাম মোহাম্মদ রাজু, মো. বেলাল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, এবিএম লিয়াকত হোসেন চাকলাদার, জাতীয় যুব সংহতির সদস্য সচিব আহাদ ইউ চৌধুরী শাহীন।

দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন জাতীয় পার্টির যুগ্ম ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হাফেজ ক্বারী ইছারুহুল্লাহ আসিফ।

মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন- চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা ড. নুরুল আজহার শামীম, অধ্যাপক ডা. শহিদুল ইসলাম, হারুন আর রশিদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. মমতাজ উদ্দিন, ভাইস চেয়ারম্যান মৌলভী ইলিয়াস, এস এম শাহরিয়ার আসিফ, মো. জসিম উদ্দিন ভূইঁয়া, যুগ্ম মহাসচিব (সাবেক) সালাউদ্দিন আহমেদ মুক্তি, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য নির্মল চন্দ্র দাস, হুমায়ুন খান, এম এ রাজ্জাক খান, এস এম আল জুবায়ের, গোলাম মোস্তফা, অ্যাড. ফিরোজ, যুগ্ম সম্পাদক সরদার আবু সাদেক বাদল, আখতার হোসেন দেওয়ান, এস এম সোবাহান, সুজন দে, হেলাল উদ্দিন হেলাল, মাহমুদ আলম, সমরেশ মন্ডল মানিক, আলহাজ মীর সামসুল আলম লিপটন, শহীদ হোসেন সেন্টু, কেন্দ্রীয় সদস্য আবু সাঈদ স্বপন, খুররম ভূঁইয়া, মুস্তাইন বিল্লাহ, আনোয়ার হোসেন আনু, মোকলেছুর রহমান বস্তু, প্রকৌশলী মো. শহিদুল ইসলাম, মো. আছাদুল হক, আনোয়ার হোসেন, আলমগীর কবির মজুমদার, এম এ হাসিম, অ্যাড. আবু ওয়াহাব, আজিজুল হুদা চৌধুরী সুমন, জাতীয় ছাত্র সমাজের সভাপতি মো. ইব্রাহিম খান জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক আল মামুন, জাতীয় হকার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক রাশেদ নিজাম, জাতীয় শ্রমিক পার্টি সাংগঠনিক সম্পাদক তসলিম উদ্দিন সাগর, দফতর সম্পাদক আব্দুল লতিফ মিয়া প্রমুখ।  

বাংলাদেশ সময়: ২২৩৯, আগস্ট ১৫, ২০২২
এসএমএকে/জেডএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa