ঢাকা, রবিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৪ আগস্ট ২০২২, ১৫ মহররম ১৪৪৪

জাতীয়

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেফতার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩৯ ঘণ্টা, জুলাই ৪, ২০২২
বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেফতার

সাভার, (ঢাকা): সাভারে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের মামলার পলাতক প্রধান আসামি সাদ্দাম হোসেনকে (২২) ধামরাই থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৪) একটি অভিযানিক দল।

শনিবার (২ জুলাই) দুপুরে এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে র‌্যাব-৪।



এর আগে, শুক্রবার (১ জুলাই) দিনগত রাতে ধামরাই উপজেলার কুল্লা ইউনিয়নের কেলিয়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার সাদ্দাম হোসেন সাভার উপজেলার তেতুঝোড়া ইউনিয়নের হরিণধারা (শ্যামপুর বাজার) গ্রামের মৃত কুতুব আলীর ছেলে।

র‌্যাব সূত্রে জানা যায়, এক বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরী সাভার মডেল থানাধীন শ্যামপুর এলাকার তার ভাইয়ের ভাড়া বাসায় বসবাস করত। ভুক্তভোগীর ভাই-ভাবী একই এলাকার একটি অফিসে চাকরি করতো। প্রতিদিনের মতো তার ভাই-ভাবী গত ১২ জুন দুপুরের খাবারের জন্য অফিস থেকে বাসায় এসে খাবার খেয়ে ভুক্তভোগীকে একা রেখে পুনরায় অফিসে চলে যায়। এই সুযোগে আসামিরা সাদ্দাম ভুক্তভোগিকে বাসায় একা পেয়ে বিভিন্নভাবে ফুসলিয়ে শ্যামপুর এলাকার একটি নির্মাণাধীন বাড়ির দোতলার নিচতলায় ডেকে নিয়ে হাত-পা বেঁধে আসামী সাদ্দাম হোসেনসহ অন্যান্য আসামিরা ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে ভুক্তভোগীর চিৎকারে আশেপাশের লোকজন জড়ো হয়ে তাকে উদ্ধার করার জন্য এগিয়ে এলে আসামিরা পালিয়ে যায়। পরে ১৪ জুন ভিকটিমের ভাই বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

এই বিষয়ে র‌্যাব-৪ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মাজহারুল ইসলাম বলেন, র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল অভিযান পরিচালনা করে শুক্রবার দিনগত রাতে ওই ধর্ষণ মামলার আসামি সাদ্দামকে ধামরাই উপজেলা  কেলিয়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। আসামির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন। অদূর ভবিষ্যতে এইরুপ অপরাধীদের বিরুদ্ধে র‌্যা-৪ এর অভিযান অব্যাহত থাকবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩৭ ঘণ্টা, জুলাই ০৪, ২০২২
এসএফ/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa