ঢাকা, রবিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৪ আগস্ট ২০২২, ১৫ মহররম ১৪৪৪

জাতীয়

উদ্বোধনের আগেই দেবে গেল নওগাঁ-নাটোর আঞ্চলিক মহাসড়ক

তৌহিদ ইসলাম, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৪৮ ঘণ্টা, জুন ২৬, ২০২২
উদ্বোধনের আগেই দেবে গেল নওগাঁ-নাটোর আঞ্চলিক মহাসড়ক

নওগাঁ: নওগাঁ-নাটোর আঞ্চলিক মহাসড়কের নির্মাণকাজ প্রায় শেষের দিকে। সড়কটি নওগাঁর ঢাকা রোড থেকে শুরু করে রাণীনগর ও আত্রাই উপজেলার রেল লাইনের পাশ দিয়ে চলে গেছে নাটোর শহরের বাইপাস সড়কে।

সড়কটি চালু হলে নওগাঁ থেকে ঢাকার দূরত্ব কমবে প্রায় ১০০ কিলোমিটার। পাশাপাশি এই মহাসড়কটি উত্তরবঙ্গের বিশেষ করে দিনাজপুর, পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, জয়পুরহাট ও নওগাঁসহ বিভিন্ন জেলার ঢাকাগামী যানবাহন ও যাত্রীরা নাটোর হয়ে খুব সহজেই ঢাকা যেতে পারবেন।

পুরো সড়কে ৫টি সেতু ও ১০টি কালভার্ট নির্মাণ কাজ ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে। বর্তমান সড়কের উপরিভাগের কাজও শেষের দিকে। কিছু কিছু জায়গায় শুধুমাত্র কার্পেটিং কাজ বাকি আছে। এই মহাসড়কের নির্মাণ কাজে ব্যয় ধরা হয়েছে ১২৯ কোটি টাকা। পুরো প্রকল্পটিকে ৪টি ফেজে ভাগ করে ৪টি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কাজ করছেন। নওগাঁ-নাটোর অঞ্চলিক সড়কটির নির্মাণ কাজের দেখভাল করছেন নওগাঁ সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

কিন্তু উদ্বোধনের আগেই আত্রাই উপজেলার শাহাগোলা এলাকায় মহাসড়কটির প্রায় ২০০ ফুট রাস্তা মাটির নিচে দেবে গেছে। গতকাল শনিবার (২৫জুন) বিকেলে হঠাৎ করেই দেবে যায় সড়কটি। ফলে মহাসড়কটির মাঝে বড় ধরনের ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে সড়কটির এমন অবস্থা দেখে স্থানীয়দের মাঝে নানাবিধ প্রশ্নের জন্ম হয়েছে। তাদের দাবি সড়কটির কাজ ভাল হচ্ছে না। ফলে উদ্বোধনের আগেই সড়কটি দেবে গেছে। তাই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানকে জবাবদিহিতার আওতায় এনে জরিমানারও দাবি জানান স্থানীয়রা। পাশাপাশি সড়কটির কাজ যাতে ভাল হয় সেই দিকে সরকারের ওপর মহলের নজরদারির দাবি জানোনা হয়েছে স্থানীয়দের পক্ষ থেকে।  

নওগাঁ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সাজেদুর রহমান সাজিদ জানান, সড়ক দেবে যাওয়ার খবর পাওয়ার পর আমি ও আমার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা গতকাল বিকেলেই সড়কটি পরিদর্শন করেছি। সড়কটির দেবে যাওয়ার বিষয়টি প্রাথমিকভাবে বোঝা যাচ্ছে না।
তবে এরই মধ্যে দেবে যাওয়া সড়কের ওই অংশটুকু পুনঃনির্মাণের কাজ শুরু করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১২৪৪ ঘণ্টা, জুন ২৬, ২০২২
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa