ঢাকা, বুধবার, ২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৮ মহররম ১৪৪৪

জাতীয়

চারবেলা খাবারের সুবিধাসহ ১০ হাজার নেতাকর্মী যাচ্ছেন পদ্মা সেতুর উদ্বোধনীতে

জাহিদুল ইসলাম মেহেদী, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বরগুনা | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৪৬ ঘণ্টা, জুন ২৫, ২০২২
চারবেলা খাবারের সুবিধাসহ ১০ হাজার নেতাকর্মী যাচ্ছেন পদ্মা সেতুর উদ্বোধনীতে

বরগুনা : রাত পোহালেই উদ্বোধন হবে পদ্মা সেতু। নিজ চোখে না দেখে এ মাহেন্দ্রক্ষণের সাক্ষী হতে চাচ্ছেন না বরগুনার আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা।

তাই চারবেলা খাবারের সুবিধাসহ ৭টি বহুতল বিলাসবহুল লঞ্চে ১০ হাজার নেতাকর্মী যাচ্ছেন সেতুর উদ্বোধনীতে। তাদের যাতায়াতও ফ্রি।

শুক্রবার (২৪ জুন) বিকেল ৬টি উপজেলায় বিভিন্ন স্থান থেকে নেতাকর্মীদের নিয়ে মুন্সিগঞ্জের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

আমতলী পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মতিয়ার রহমান বাংলানিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, শত বাঁধা বিপত্তি উপেক্ষা করে নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করে সারা বিশ্বকে অবাক করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এটা আমাদের জন্য গর্বের। তাই এই সেতুর ইতিহাসে নাম লেখাতে উদ্বোধনী সভায় যোগ দিতে আমরা আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সব নেতাকর্মী লঞ্চযোগে জননেত্রীকে স্বাগত জানাতে পদ্মার পাড়ে যাচ্ছি।

আমার সাথে উপস্থিত আছেন আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মো. মতিয়ার রহমান, সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট এমএ কাদের মিয়া, আমতলী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) মো. মজিবুর রহমান, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি মো. মিজানুর রহমান ও আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মিজানুর রহমান।

এ বিষয়ে বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম সরোয়ার টুকু বাংলানিউজকে জানান, বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে মোট সাতটি লঞ্চ স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আত্মমর্যাদার প্রতীক স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন হবে, সেই মাহেন্দ্রক্ষণে সাক্ষী হতে সাতটি লঞ্চে প্রায় ১০ হাজার নেতাকর্মী নিয়ে রওনা করেছি।

বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু বাংলানিউজকে বলেন, আমরা যারা আনুষ্ঠানিকভাবে যাচ্ছি তারা দোতলা ও তিন তলা লঞ্চগুলোর মাধ্যমে যাচ্ছি। তবে এখান থেকে যে ৭টা লঞ্চ যাচ্ছে এতে অন্তত ১০ হাজার নেতাকর্মী আগামীকাল সকালে পতাকা হাতে পদ্মা পাড়ে থাকবে। জেলার সকল নেতাকর্মী হাতে জাতীয় পতাকা থাকবে। পতাকা হাতে থাকার কারণে সাংবাদিকরা বুঝতে পারবেন বরগুনা থেকে কত হাজার নেতাকর্মী এখানে উপস্থিত হয়েছেন।

জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সকল নেতাকর্মীকে সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সবাইকে চার বেলা করে খাবারের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। সে মোতাবেক তাদের চার বেলা করেই খাবার দেওয়া হবে। তাদের যাতায়াতও ফ্রি।

বাংলাদেশ সময়: ০০৪০ ঘণ্টা, জুন ২৫, ২০২২
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa