ঢাকা, বুধবার, ২১ আষাঢ় ১৪২৯, ০৬ জুলাই ২০২২, ০৬ জিলহজ ১৪৪৩

জাতীয়

ব্রহ্মপুত্রের ভাঙন থেকে ফুলছড়ির স্থাপনা রক্ষার দাবি

ডিস্ট্রিক্ট করেসটন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২২ ঘণ্টা, মে ২৮, ২০২২
ব্রহ্মপুত্রের ভাঙন থেকে ফুলছড়ির স্থাপনা রক্ষার দাবি ছবি: বাংলানিউজ

গাইবান্ধা: গাইবান্ধার ফুলছড়িতে নদী ভাঙন থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বসতবাড়ি, আবাদি জমিসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।  

শনিবার (২৮ মে) দুপুর ২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত উপজেলার উড়িয়া ইউনিয়নের উত্তর উড়িয়া গ্রামে ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙন কবলিত এলাকায় নারী-পুরুষ, বৃদ্ধসহ কয়েকশ মানুষ মানববন্ধনে অংশ নেন।

 

তাদের দাবির সঙ্গে একত্মতা ঘোষণা করে বক্তব্য রাখেন, ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জিএম সেলিম পারভেজ, কঞ্চিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহেল রানা শালু, উড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা কামাল পাশা, ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন মিয়া, ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম সাজু ও আজাদ হোসেন, শিক্ষক আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের খলাইহাড়া ও উড়িয়া ইউনিয়নের উত্তর উড়িয়া, কটিয়ারভিটা, ভুষিরভিটা, দাড়িয়ারভিটা এলাকায় ব্যাপক ভাঙন দেখা দিয়েছে। ভাঙন রোধে দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে এ এলাকার ৭টি মসজিদ, ৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কবরস্থান, ফসলি জমি ও ঘরবাড়ি ভেঙে যাবে।  

তারা বলেন, আমাদের ঘর-বাড়ি নদীতে বিলীন হয়ে গেলে আমরা বাস্তুহারা হয়ে যাব। আমাদের পরিবার পরিজন নিয়ে খোলা আকাশের নিচে বসবাস করতে হবে।  

তারা দ্রুত নদী ভাঙন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডসহ সংশ্লিষ্ট সকলের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এ বিষয়ে গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু রায়হান বলেন, ভাঙ্গন কবলিত এলাকাগুলো দ্রুত পরিদর্শন করা হবে। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে স্থায়ী ব্যবস্থা না হলেও আপাতত অস্থায়ীভাবে জিওব্যাগ ড্যাম্পিংএর ব্যবস্থা করা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৮ ঘণ্টা, ২৮ মে, ২০২২
এসএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa