ঢাকা, রবিবার, ২৮ চৈত্র ১৪২৭, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৭ শাবান ১৪৪২

জাতীয়

ঘুষের মামলায় পুলিশের সাবেক এসআই’র কারাদণ্ড

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১২
ঘুষের মামলায় পুলিশের সাবেক এসআই’র কারাদণ্ড

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের বায়েজিদ বোস্তামি থানার সাবেক উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. নবী উল্লাহকে মোট দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত। ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে দায়ের হওয়া একটি মামলায় তাকে এ কারাদণ্ড দেওয়া হয়।



একই রায়ে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া ঘুষ হিসেবে নেওয়া ২০ হাজার টাকা ও একটি মোটর সাইকেল রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

রোববার চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিশেষ আদালতের জজ মুহাম্মদ আতাউর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।  

ওই আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মাহমুদুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, ‘ঘুষ গ্রহণের মামলায় দণ্ডবিধির ১৬১ ধারায় নবী উল্লাহকে এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন। তবে সব সাজার মেয়াদ একইসঙ্গে শুরু হবে বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে। ’

আদালত সূত্র জানায়, ২০০৮ সালে জনৈক কেয়া কবির নামে এক মহিলার কাছ থেকে জালালাবাদ এলাকায় অবৈধ দখল থেকে সম্পত্তি উদ্ধারের কথা বলে দুই লাখ টাকা ও একটি মোটর সাইকেল ঘুষ হিসেবে দাবি করেন বায়েজিদ থানার তৎকালীন এসআই নবী উল্লাহ।

ওই বছরের ৮ সেপ্টেম্বর কেয়া কবির তাকে ঘুষ হিসেবে ২০ হাজার টাকা ও একটি মোটর সাইকেল দেন। খবর পেয়ে ওইদিনই দুদকের কর্মকর্তারা নবী উল্লাহকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করেন।

গ্রেপ্তারের পর তাকে চাকুির থেকে বরখাস্ত করা হয়। এছাড়া ঘুষ গ্রহণের ঘটনায় কেয়া কবির বাদী হয়ে বায়েজিদ বোস্তামী থানায় তার বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন।

২০০৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর দুদকের তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই নবী উল্লাহকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

মামলায় চার্জগঠনের পর মোট ৯ সাক্ষীর সাক্ষ্য নেওয়া হয়। রায় ঘোষণার সময় জামিনে থাকা আসামি নবী উল্লাহ আদালতে হাজির ছিলেন। রায় ঘোষণার পর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১২

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa