ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ মে ২০২২, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

প্রবাসীর মেয়ে বেড়াতে এসে দেখলেন উঠানে মা-বোনের লাশ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৫১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০২২
প্রবাসীর মেয়ে বেড়াতে এসে দেখলেন উঠানে মা-বোনের লাশ

নোয়াখালী: নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় নিজেদের বাড়ির উঠানে এক প্রবাসীর স্ত্রী ও কন্যার মরদেহ পাওয়া গেছে।  

রোববার (১৬ জানুয়ারি) বিকেলে হাতিয়া পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের গুল্লাখালী গ্রাম থেকে মা ও মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

 

মৃতরা হলেন গুল্লাখালী গ্রামের প্রবাসী রবিউল হকের স্ত্রী লুৎফা বেগম (৪৫) ও মেয়ে চাঁদনী (৭)।
 
স্থানীয়রা জানান, রবিউল ও লুৎফার বড় মেয়ে নাদিয়া বেগম (২৫) দুপুর ২টার দিকে বাবার বাড়িতে বেড়াতে এসে উঠানে মা ও বোনকে অচেতন অবস্থায় উঠানে পড়ে থাকতে দেখেন। এসময় তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে দেখেন, দু’জনই মৃত। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে নিহত মা-মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

নাদিয়া বেগম বলেন, আমি কাছেই শ্বশুরবাড়ি থেকে স্বামীর কর্মস্থল নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলায় যাওয়ার জন্য বের হই। মা-বোনকে একনজর দেখার জন্য দুপুরে বাবার বাড়িতে গিয়ে দু’জনই ঘরের উত্তর পাশের উঠানে পড়ে থাকতে দেখি। তারা জীবিত আছে ভেবে হাসপাতালে নেওয়ার জন্য প্রতিবেশীদের ডাকি। তারা ছুটে এসে দেখে যে দু’জনই মৃত।

হাতিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কাঞ্চন কান্তি দাস বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ব্যাপারে এখনো কেউ লিখিত অভিযোগ করেননি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০২২
এসআই
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa