ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ মাঘ ১৪২৮, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

জাতীয়

বিএনপি ওমিক্রন বেশি ছড়াতে চায় কি না, প্রশ্ন তথ্যমন্ত্রীর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০২২
বিএনপি ওমিক্রন বেশি ছড়াতে চায় কি না, প্রশ্ন তথ্যমন্ত্রীর

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ওমিক্রন প্রতিরোধে শুধু বিএনপির সমাবেশ বন্ধ রাখতে বলা হয়নি। আওয়ামী লীগসহ সকল রাজনৈতিক দলের জন্যই তা প্রযোজ্য।

এখন বিএনপি ওমিক্রন প্রতিরোধ না করে ওমিক্রন বেশি ছড়াতে চায় কি না, সেটিই প্রশ্ন।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর মিন্টু রোডের বাসভবনে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, সরকার জনস্বার্থে প্রজ্ঞাপণ জারি করেছে। বিএনপি না মেনে তাদের কর্মসূচি চালালে করোনা সংক্রমণের দায় তাদেরকে নিতে হবে।

তিনি বলেন, রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপি সভা সমাবেশ করতেই পারে। সরকার সহযোগিতা করছে। অথচ তারা বিভিন্ন বিশৃঙ্খলা করছে নিজেদের মধ্যে।

বিএনপির সব কিছু নিয়েই রাজনীতি করার বাতিক রয়েছে মন্তব্য করে হাছান মাহমুদ বলেন, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সক্ষম হয়েছে সরকার। করোনা এবং করোনার টিকা নিয়ে মিথ্যাচার করছে বিএনপি নেতারা। করোনা মহামারি ও টিকা কার্যক্রম নিয়েও বিভ্রান্তি ছড়িয়েছিল তারা। গুজব ছড়ানো সত্ত্বেও সরকার সফলভাবে করোনা মোকাবিলা করছে।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের বিবৃতিকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত আখ্যা দিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, হিউম্যান রাইটস ওয়াচের বিবৃতিটি আমি দেখেছি। এটি কোনোভাবেই বাস্তবসম্মত নয়। এটি একপেশে ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত। সেখানে উল্লিখিত নির্দিষ্ট দু’তিনটি বিষয় ছাড়া মানবাধিকার নিয়ে তাদের আর কিছু জানা আছে বলে মনে হয় না। একজন লেখক ও রেইন ট্রি হোটেল নিয়ে কিছু ব্যক্তি বিশেষ বিভিন্ন সভা-সমিতিতে প্রায়ই যা বলে থাকেন, বিবৃতিতে সেগুলোই আছে।

কয়েকদিন আগে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিশেষজ্ঞরা গুয়ান্তানামো বে’র বন্দী নির্যাতন কারাগার বন্ধের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহবান জানিয়েছে এবং হিউম্যান রাইটস ওয়াচ যে দেশে বসে পরিচালিত হয়, অর্থাৎ সেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেই যে মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন হয়, সেসবের দিকে নজর দিতে হিউম্যান রাইটস ওয়াচের প্রতি অনুরোধ জানান ড. হাছান।

এর আগে মন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন রাঙ্গুনিয়া উপজেলার দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতায় করেন।

কমিশনের রাঙ্গুনিয়া শাখার সভাপতি অধ্যক্ষ কে এম মুছার সভাপতিত্বে সম্মেলনে উপজেলা চেয়ারম্যান স্বজন কুমার তালুকদার উদ্বোধক ও রাঙ্গুনিয়া পৌরসভা মেয়র আলহাজ্ব মো. শাহজাহান শিকদার বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০২২
নিউজ ডেস্ক

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa