ঢাকা, রবিবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

জাতীয়

নারীকে দিয়ে ফাঁদ পেতে ধনী পুরুষের সঙ্গে প্রতারণা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫১ ঘণ্টা, নভেম্বর ২, ২০২১
নারীকে দিয়ে ফাঁদ পেতে ধনী পুরুষের সঙ্গে প্রতারণা

রাজশাহী: রাজশাহীতে নারী দিয়ে ধনী পুরুষদের পরিকল্পিতভাবে ফাঁসিয়ে চাঁদা আদায়কারী চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। অবসরপ্রাপ্ত এক সেনা সদস্যকে পরিকল্পিতভাবে ফাঁসিয়ে অপহরণ, প্রাণনাশের হুমকি ও চাঁদা আদায়ের অপরাধে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

এ সময় গ্রেফতারদের কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নেওয়া নগদ ৪৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) দুপুরে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) সদর দফতরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আরএমপি কমিশনার মো. আবু কালাম সিদ্দিক এসব তথ্য জানান।

গ্রেফতার ৪ জন হলেন—রাজশাহী মহানগরের কাটাখালী থানার সমসাধীপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামের মো. গাজী সালাউদ্দিনের ছেলে সায়েম উদ্দিন শ্যাম (৩৫), বোয়ালিয়া মডেল থানার হাদির মোড় নদীর ধার এলাকার মৃত দুলাল বিশ্বাসের ছেলে পারভেজ (৩২), এয়ারপোর্ট থানার বায়া তেরিপাড়া গ্রামের বাপ্পী হোসেনের স্ত্রী রাজিয়া সুলতানা সুমা (৩০) ও রাজপাড়া থানার বহরমপুর গ্রামের মামুনুর রহমান বাবুর স্ত্রী শরিফা আক্তার সাথী (২৭)।

আরএমপি কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক বলেন, গত ৩১ অক্টোবর অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য মো. ইকবাল (৫৬) (ছদ্মনাম) মহানগরের শিরোইল বাস টার্মিনাল থেকে বাড়ি যাওয়ার জন্য অটোরিকশায় উঠলে সুমা ও সাথী একই অটোরিকশায় ওঠেন। এ সময় ইকবালকে ঠিকানা লেখা একটি চিরকুট দিয়ে জানান, তারা রাজশাহীতে নতুন এসেছেন, কিছু চেনেন না। তারা ইকবালকে ওই ঠিকানায় পৌঁছে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। ইকবাল ঠিকানা অনুযায়ী পৌঁছে দেওয়ার জন্য ঐতিহ্য চত্বরে গেলে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী পারভেজ ও সায়েম সেই অটোরিকশায় ওঠেন।

এক পর্যায়ে তারা ইকবালকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে সাথীর বাড়িতে নিয়ে যান। সেখানে জোরপূর্বক শরিফার সঙ্গে ইকবালের অশ্লীল ছবি তোলেন। তারা ইকবালের কাছে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ ও চাঁদা দাবি করেন। টাকা না পেলে এসব অশ্লীল ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেন। তখন ইকবাল তার ব্যাগে থাকা স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য রাখা ৫০ হাজার টাকা তাদের হাতে তুলে দেন। পরে আরও এক লাখ টাকা দেওয়ার শর্তে তারা ইকবালকে ছেড়ে দেন।

আরএমপি কমিশনার আরও বলেন, এ ঘটনায় ইকবাল ডিবি পুলিশকে মৌখিকভাবে অভিযোগ দিলে অভিযুক্তদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু হয়। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার (১ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মহানগরের রাজপাড়া থানার বহরমপুর এলাকা থেকে নারী দিয়ে পরিকল্পিতভাবে ফাঁসিয়ে চাঁদা আদায়কারী চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। আটক ৪ জনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানান পুলিশ কমিশনার।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩০ ঘণ্টা, নভেম্বর ০২, ২০২১
এসএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa