ঢাকা, সোমবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

ফেরি উদ্ধারে প্রত্যয়ের দেখা নেই, সক্ষম নয় হামজা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৩৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৮, ২০২১
ফেরি উদ্ধারে প্রত্যয়ের দেখা নেই, সক্ষম নয় হামজা ছবি: বাংলানিউজ

মানিকগঞ্জ: বুধবার (২৭ অক্টোবর) আনুমানিক সকাল পৌঁনে ১০টার দিকে পাটুরিয়া ফেরি ঘাটের ৫ নম্বর পন্টুনের প্রথম পকেটে আমানত শাহ নামের রো রো ফেরি যানবাহন আনলোড করতে গিয়ে ডান দিকে কাঁত হয়ে একাংশ ডুবে যায়।

ডুবে যাওয়ার পর ফেরি থাকা ১৪টি পণ্য বোঝাই ট্রাক পদ্মা নদীতে তলিয়ে গেলে উদ্ধার কাজে অংশ নেয় স্থানীয় প্রশাসন, ফায়ার সার্ভিসের একাধিক ইউনিট।

পরে তাদের সঙ্গে আরও জোগ দেয় নৌ-বাহিনী এবং বিআইডব্লিউটিএ'র ডুবুরি দল।

ফেরি ডুবে যাওয়ার ঘটনা ঘটার সঙ্গে সঙ্গে আরিচার যমুনা নদীতে ভেঁসে থাকা বিআইডব্লিউটিএ'র উদ্ধারকারী জাহাজ হামজা উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছে। একার পক্ষে আমানত শাহ নামের ওই ফেরিটি উদ্ধার করা সম্ভব হবে না বিধায় নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রত্যয় নামের আরো একটি জাহাজ আসার কথা থাকলেও তার কোনো দেখা মেলেনি।

সরেজমিনে দেখা যায়, পাটুরিয়া ৫ নাম্বার ঘাট এলাকায় রো রো ফেরি আমানত শাহ দ্বিতীয় দিনেও এখনো উদ্ধার হয়নি তবে বিআইডব্লিউটিএর উদ্ধারকারী জাহাজ হামজা একটি মোটরসাইকেল এবং পণ্য বোঝাই ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান উদ্ধার করেছে ১০টি। ডুবে যাওয়ার আগে ৩টি যানবাহন নামতে পারলেও সকাল পৌঁনে ১০টার দিকে কাঁত হয়ে পন্টুন এলাকায় ১৪টি কাভার্ডভ্যান ও মোটরসাইকেল নিয়ে ফেরিটি ডুবে যায়। পরে ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট, তিনটি ডুবুরি দল ও উদ্ধারকারী জাহাজ হামজা উদ্ধার অভিযান শুরু করে। গতকাল রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত একটি মোটরসাইকেল ও চারটি ট্রাক উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনে উদ্ধারকারী জাহাজ হামজা সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উদ্ধার কাজ শুরু করেছে এবং ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট কাজ করছে।

বিআইডব্লিউটিএর নৌ সংরক্ষণ ও পরিচালন বিভাগের পরিচালক মো. শাজাহান বলেন, আমানত শাহ ফেরিটির বডির ওজন ৪৮০ টন। ভেতরে পানি থাকায় ওজন আরও বেড়েছে। উদ্ধারকারী জাহাজ হামজার ৬০ টন পর্যন্ত উদ্ধার সক্ষমতা রয়েছে। প্রত্যয় নামের যে জাহাজটি অভিযানে যুক্ত হবে সেটি ২৫০ টন পর্যন্ত উদ্ধার সক্ষমতা রয়েছে। হামজা ও প্রত্যয় স্থানীয় বিভাগগুলোর সঙ্গে সমন্বয় করে ফেরিটি উদ্ধার করতে হবে। কারণ উদ্ধারকারী জাহাজগুলোর উদ্ধার সক্ষমতার চেয়ে আমানত শাহর ওজন বেশি। আপাতত হামজা দিয়ে যানবাহনগুলো উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ বলেন, ইতোমধ্যে এ দুর্ঘটনার বিষয়ে নৌ মন্ত্রণালয় ও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।  

প্রত্যয় নামের উদ্ধারকারী জাহাজ কখন আসবে এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, উদ্ধারকারী জাহাজ অনেক লোড সে জন্য আসতে দেরি হচ্ছে তবে আজ সন্ধ্যায় বা কাল সকালের দিকে আসতে পারে।

আরও পড়ুন>>
আবারও ফেরি উদ্ধার কাজ শুরু
ফেরি উদ্ধারে কাজ করছে হামজা

পাটুরিয়ায় যানবাহনসহ ডুবে গেল আমানত শাহ
পাটুরিয়ায় ফেরিটি ডুবে যায়নি, হেলে পড়েছে: মন্ত্রণালয়

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৮, ২০২১
কেএআর
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa