ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

জাতীয়

সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বে সহপাঠীকে খুন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৭, ২০২১
সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বে সহপাঠীকে খুন

ঢাকা: সিলেটের দক্ষিণ সুরমা সরকারি কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র দুজনই। কিন্তু একজন বয়সে বড় হওয়ায় নিজেকে জ্যেষ্ঠ দাবি করে সহপাঠীর সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়ান।

এর জেরে একপর্যায়ে সহপাঠীকে ছুরিকাঘাত করে খুন করেন নিজেকে জ্যেষ্ঠ দাবি করা ওই ছাত্র।

গত ২১ আগস্ট দুপুরে দক্ষিণ সুরমা কলেজের মেধাবী ছাত্র আরিফুল ইসলাম রাহাতকে (১৮) কলেজ গেটে ছুরিকাঘাত করে খুন করা হয়।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানা এলাকা থেকে প্রধান অভিযুক্ত শামসুদ্দোহা সাদীকে (২৩) গ্রেফতার করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর মালীবাগে সিআইডি কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার (এসএসপি) মুক্তা ধর।

তিনি জানান, চাঞ্চল্যকর এই হত্যাকাণ্ডে হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতারসহ বিচার দাবিতে কলেজের সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে কলেজ কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্টকালের জন্য পাঠদান বন্ধ ঘোষণা করে। ঘটনার পর থেকেই সিআইডি ঘটনাটির ছায়া তদন্ত শুরু করে।

এর ধারাবাহিকতায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানাধীন দুর্গম চর এলাকা থেকে মামলার এজাহারভুক্ত প্রধান আসামি শামসুদ্দোহা সাদীকে গ্রেফতার করা হয়।

সাদীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে এসএসপি মুক্তা ধর জানান, গ্রেফতার আসামি হত্যার দায় স্বীকার করেছেন তিনি। ভিকটিম রাহাত ও আসামি সাদী একই কলেজের একই শ্রেণির ছাত্র ছিলেন। সাদী কলেজের পার্শ্ববর্তী এলাকার বাসিন্দা হওয়ায় এবং বয়সে রাহাতের চেয়ে বড় হওয়ায় তিনি রাহাতের কাছে নিজেকে সিনিয়র দাবি করে আসছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় উভয়ের মধ্যে চলমান বিবাদের জেরে হত্যাকাণ্ড সংঘঠিত হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৭, ২০২১
পিএম/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa