ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

ভারতে পাচার ১৯ নারীকে দেশে হস্তান্তর

উপজেলা করেসপন্ডেট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৩৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ২১, ২০২১
ভারতে পাচার ১৯ নারীকে দেশে হস্তান্তর ছবি: বাংলানিউজ

বেনাপোল (যশোর): ভালো কাজের প্রলোভনে পড়ে বিভিন্ন সময় ভারতে পাঁচার হওয়া ১৯ নারীকে উদ্ধারের পর বেনাপোল বন্দর দিয়ে দেশে ফেরত পাঠিয়েছে ভারত সরকার।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদের ট্রাভেল পারমিট প্রক্রিয়ায় বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশে সোপর্দ করে।

 

ফেতর আসা নারীরা হলেন- গোপালগঞ্জের পিংকি দীপক বর্মন (২০), খুলনার আমেনা আক্তার আঁখি (১৯), পারুইনা আজমল গাজী (১৬), ফরিদপুরের নিপা আক্তার (২২), মিনারা খানম মীম (২৭), যশোরের আসমা (১৪), মাবিয়া তৈয়ব শেখ (২১), অনিকা খাতুন  (১৪), রিকতা সরকার (১৬), গাজীপুরের আসমা বেগম (১৭), কক্সবাজারের সীমা শেখ (১৬), নারায়ণগঞ্জের জেসমিন আক্তার (২৭), ঢাকার তানিয়া খাতুন (১৬), নড়াইলের নাসরিন খানম (২৮), পিয়া খানম (২১), নাসিমা বেগম (২৭), আনোয়ারা খাতুন (২৮) নরসিংদীর রুকু আক্তার (২৪) ও শেরপুর জেলার মালেকা খাতুন (২১)।

 জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ারের যশোর শাখার সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার শাওলী সুলতানা বাংলানিউজকে জানান, ভালো কাজের প্রলোভনে পড়ে দেশের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে ওই ১৯ নারীকে ভারতে পাচার করা হয়েছিল। পাচারকারীরা তাদের ভারতের মুম্বাইয়ে নিয়ে গিয়ে ভালো কাজ না দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ কাজে জোর করে ব্যবহার করে। খবর পেয়ে মুম্বাই পুলিশ তাদের উদ্ধার করে আদালতে পাঠায়। সেখান থেকে ভারতের মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের শেল্টার হোমে রাখে। পরে দু’দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আইনি প্রক্রিয়ায় তাদের ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে দেশে ফেরার সুযোগ পান।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব বাংলানিউজকে জানান, ইমিগ্রেশনে কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে আইনি সহায়তা দিতে ১২ জন নারীকে জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার, এক জনকে বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতি ও ছয় জনকে রাইটস যশোর নামে গ্রহণ করেছে এনজিও।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২১, ২০২১
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa