ঢাকা, বুধবার, ১১ কার্তিক ১৪২৮, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

শরীরের বাইরে হৃৎপিণ্ড: বাঁচানো গেল না শিশুটিকে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২১
শরীরের বাইরে হৃৎপিণ্ড:  বাঁচানো গেল না শিশুটিকে

ব‌রিশাল: বরিশালের আগৈলঝাড়ায় শরীরের বাইরে হৃৎপিণ্ড নিয়ে জন্ম নেয়া শিশুকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। স্থানীয় নিউ ডিজিটাল ডায়গনস্টিক সেন্টার ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

এর আ‌গে ওই ক্লিনিকে গত বৃহস্পতিবার (১৬ সে‌প্টেম্বর) অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে জন্ম হয় শিশুটির। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় নেওয়া হয়।

চিকিৎসকরা জানান, হৃৎপিণ্ড শিশুর শরীরের ভেতরে স্থাপন করা সম্ভব। তবে এ চিকিৎসা ব্যয়বহুল। প্রয়োজন হবে ৮ থেকে ১০ লাখ টাকা। তাই অর্থের অভাবে চিকিৎসা শুরু করতে পারেননি রমেন জয়ধর-অপু দম্পতি। সন্তানকে বাঁচাতে সবার সহযোগিতা চেয়েছিলেন তারা।

শিশুটির বাবা-মা জানান, জন্মের পরই দেখতে পান নবজাতক কন্যার হৃৎপিণ্ড শরীরের বাইরে। সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসকের পরামর্শে মেয়েকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে নেওয়া হয়।

সেখানকার চিকিৎসকরা নবজাতকটিকে ঢাকা শিশু হাসপাতালে ভর্তি করার পরামর্শ দেন। এরপর ঢাকা শিশু হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখান থেকে তাদের পাঠানো হয় বারডেম হাসপাতালে।

বারডেমের চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, শিশুটিকে আইসিইউতে ভর্তিসহ অপারেশনের জন্য খরচ হবে প্রায় ৮ থেকে ১০ লাখ টাকা।

এদিকে চিকিৎসার জন্য এতো টাকা না থাকায় পুনরায় শিশুটিকে রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) ঢাকা থেকে বাড়িতে এনে স্থানীয় ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়।

সিজারিয়ান অপারেশন করা ডিজিটাল ডায়গনিষ্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকের পরিচালক ডা. হিরন্ময় হালদার জানান, দেশে কিংবা দেশের বাইরে উন্নত চিকিৎসার মাধ্যমে শিশুটির হৃদপিন্ড শরীরের ভেতরে স্থাপন করা সম্ভব ছিলো। তবে তা অনেক ব্যয় বহুল।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৮ ঘণ্টা, সে‌প্টেম্বর ২০, ২০২১
এমএস/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa