ঢাকা, সোমবার, ১২ আশ্বিন ১৪২৮, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮ সফর ১৪৪৩

জাতীয়

‘সুন্দরবন নানা কারণে বিপদজনক অবস্থানে দাঁড়িয়েছে’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১১ ঘণ্টা, জুলাই ২৬, ২০২১
‘সুন্দরবন নানা কারণে বিপদজনক অবস্থানে দাঁড়িয়েছে’ অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল।

ঢাকা: সুন্দরবন নানা কারণে আজ বিপদজনক অবস্থানে এসে দাঁড়িয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বাপা ও সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল।

সোমবার (২৬) সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটি ও বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) যৌথ ‘সুন্দরবন বিষয়ে ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্য কমিটির সাম্প্রতিক সভার সুপারিশ’ বিষয়ক এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল বলেন, সুন্দরবন নানা কারণে আজ বিপদজনক অবস্থানে দাঁড়িয়েছে। সুন্দরবন ইস্যুতে সরকার বিশ্ব ঐতিহ্য কমিটির সদস্যদের সঙ্গে দেন-দরবার করেছে বলে মনে হয়। সেটির প্রমাণ গত ৪৪তম সভায় স্পষ্টভাবে বুঝা যায়। রাজনীতি দেশের ও জনগনের স্বার্থে হচ্ছে না কি মুষ্টিমেয় মুনাফালোভীদের স্বার্থে হচ্ছে তাও জাতিকে বুঝতে হবে। আজকে আমরা অত্যন্ত হতাশা ও ক্ষোভের সঙ্গে বিশ্ব ঐতিহ্য কমিটির গত ৪৪তম সভার সুপারিশের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করছি।

সুলতানা কামাল সুন্দরবন ইস্যুকে কেন্দ্র করে নিজ সংগঠনের এবং গণমাধ্যমের পক্ষ থেকে একটি শক্ত মনিটরিং টিম গঠনের আহ্বান জানান। পাশাপাশি তিনি সুন্দরবন রক্ষায় নীতিগত কার্যপরিকল্পনা গ্রহণের আশা ব্যক্ত করেন।   

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাপা ও সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল। সঞ্চালনা ও মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন বাপার সাধারণ সম্পাদক শরীফ জামিল।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন- বেলার প্রধান নির্বাহী পরিচালক সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের সাবেক অধ্যাপক আব্দুল আজিজ, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আব্দুল্লাহ্ হারুন চৌধুরী, বাপার নির্বাহী সহ-সভাপতি এবং সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব ডা. মো. আব্দুল মতিন এবং তেল-গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সংগঠক রুহিন হোসেন প্রিন্স, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক গোলাম রহমান, বেনের সদস্য অধ্যাপক ড. সাজেদ কামাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক শহীদুল ইসলাম, বাপার কোষাধ্যক্ষ মহিদুল হক খান প্রমুখ।

এছাড়াও ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্য কমিটির সাম্প্রতিক সভায় সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির পক্ষে অংশগ্রহণকারী আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পরিবেশ কর্মী তন্নী নওশীন, ওয়ার্ড হেরিটেজ ওয়াচের চেয়ারম্যান স্টিফান ডম্পকে এবং জেনেভায় জাতিসংঘ আর্থ জাস্টিসের স্থায়ী প্রতিনিধি ইভস লেডর সংবাদ সম্মেলনে যুক্ত থেকে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন।

সংবাদ সম্মেলন থেকে বক্তারা দক্ষিণ-পশ্চিম বাংলাদেশের জন্য চলমান কৌশলগত পরিবেশ সমীক্ষা সরকারি প্রভাবে পরিচালিত প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে না করে, নিরপেক্ষ, বিজ্ঞানভিত্তিক, স্বচ্ছ এবং অংশগ্রহণমূলকভাবে সম্পন্ন করার জন্য সুনির্দিষ্ট দাবি জানানো হয়। একইসঙ্গে রামপাল, তালতলি ও কলাপাড়ার সব কয়লাভিত্তিক বিদ্যুতকেন্দ্র বন্ধ করা এবং সুন্দরবনের ভেতর দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ পণ্যবহনকারী নৌযান চলাচল নিষিদ্ধের দাবিও তুলে ধরা হয়।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯১১ ঘণ্টা, জুলাই ২৬, ২০২১
আরকেআর/এমআরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa