ঢাকা, রবিবার, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮, ০১ আগস্ট ২০২১, ২১ জিলহজ ১৪৪২

জাতীয়

ঈদের দিনেও করোনা রোগীদের পাশে তারা

মাহবুবুর রহমান মুন্না, ব্যুরো এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৯ ঘণ্টা, জুলাই ২১, ২০২১
ঈদের দিনেও করোনা রোগীদের পাশে তারা

খুলনা: খুলনা প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কঠিন সময় পার করছে। করোনার প্রকোপ এত বেশি যে এখানে সারাদেশের সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এ ভয়াবহ পরিস্থিতিতে কোনো স্বার্থ ছাড়াই বিভিন্ন সংগঠনের এক ঝাঁক মানবিক স্বেচ্ছাসেবক আক্রান্তদের সেবা করছেন। যে কারণে স্বজনদের সঙ্গেও ঈদ উদযাপন করতে পারছেন না তারা। করোনা রোগীদের সেবার মধ্যেই তারা ঈদ আনন্দ খুঁজে পাচ্ছেন।

বুধবার (২১ জুলাই) পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হচ্ছে। এ দিনেও দায়িত্ব-কর্তব্য পালনে বিরামহীন ছুটে চলছেন এসব স্বেচ্ছাসেবকরা।

এসব স্বেচ্ছাসেবকরা জানান, ঈদের দিন সবাই পরিবার নিয়ে আনন্দ করছে। কিন্তু আমরা করোনার রোগীদের সেবা করছি। এটাই আমাদের ঈদ আনন্দ।

খুলনা অক্সিজেন ব্যাংকের অর্থ সম্পাদক মো. আসাদ শেখ বাংলানিউজকে বলেন, যেকোনো মুহূর্তে অসহায় করোনায় আক্রান্ত মানুষকে বাঁচাতে বিনামূল্যে অক্সিজেনসেবা দিচ্ছি আমরা। ঈদের দিন ১০ জনকে অক্সিজেনসেবা ও সাতজনকে ওষুধসেবা দেওয়া হয়েছে। প্রায় ৩০ জন স্বেচ্ছাসেবক এ কাজে নিয়োজিত রয়েছেন। ৪০০ হতদরিদ্রের মধ্যে দু’টি গরু কোরবানি করে মাংস বিতরণ করা হয়েছে।

খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ২০০ শয্যা বিশিষ্ট করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ফ্লু কর্নারে ভর্তি বাগেরহাটের কচুয়া থেকে আসা বুলবুল বেগমের ছেলে বায়োজিদ সন্তোষ প্রকাশ করে বিকেলে বাংলানিউজকে বলেন, কোথাও কোনো অক্সিজেন পাচ্ছিলাম না। ভীষণ বিপদের মধ্যে ছিলাম। তখন খুলনা অক্সিজেন ব্যাংকের মাধ্যমে অক্সিজেনসেবা পাই। এরা অনেক মানবিক। ভালো কাজ করছে। মায়ের জীবন বাঁচাতে সহযোগিতা করেছে।

শেখ সোহেল অক্সিজেন ব্যাংকের প্রধান সমন্বয়কারী চৌধুরী রায়হান ফরিদ বাংলানিউজকে বলেন, ঈদের দিন মহানগরের টুটপাড়া, খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে বেশ কয়েকজন করোনা রোগীকে অক্সিজেন সরবরাহ করা হয়েছে। সবাই যখন ঈদ আনন্দে ব্যস্ত ঠিক সেই সময়ে শেখ সোহেল অক্সিজেন ব্যাংকের ২০ জন স্বেচ্ছাসেবক ব্যস্ত মানুষের সেবায়।

আল কারীম অক্সিজেন সেবার সমন্বয়কারী শেখ মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, আল কারীম অক্সিজেনসেবা ঈদের দিন মোট চারজনকে অক্সিজেনসেবা দিয়েছে। এছাড়া দু’জন করোনায় মৃত ব্যক্তির গোসল ও দাফন করেন স্বেচ্ছাসেবকরা। ঈদের দিন সকালে ৭০ জনের মধ্যে রান্না করা সেমাই বিতরণ ও দুপুরে ১০০ জনের মধ্য রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়। একজন ব্যক্তিকে রক্তদান করেছেন আমাদের এক স্বেচ্ছাসেবক।

আগুয়ান-৭১ এর প্রতিষ্ঠাতা ও কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. আব্দুল্লাহ চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, পরিচিতদের বাড়িতে কোরবানির মাংস নিয়ে যাওয়ার প্রতিবছরের যে চিরাচরিত চিত্র সেখানে এবার যোগ হয়েছে স্বেচ্ছাসেবীদের অক্সিজেন নিয়ে করোনা আক্রান্তদের বাড়িতে দৌড়ঝাপ। ঈদ করোনাকে থামাতে পারেনি, তাই আমাদের কর্মীরা এ দিনটিতেও নিরবচ্ছিন্ন অক্সিজেনসেবা দিয়ে চলেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৪ ঘণ্টা, জুলাই ২১, ২০২১
এমআরএম/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa