ঢাকা, সোমবার, ২ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

'কোরবানির ঈদ এলেই পার্ক থেকে ঘাস কেটে বিক্রি করি'

আবাদুজ্জামান শিমুল, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭২২ ঘণ্টা, জুলাই ১৯, ২০২১
'কোরবানির ঈদ এলেই পার্ক থেকে ঘাস কেটে বিক্রি করি'

ঢাকা: দু'দিন পরেই ঈদুল আজহা। তাই রাজধানীর হাটে হাটে ওঠতে শুরু করেছে কোরবানির পশু।

এতে পিছিয়ে নেই গো-খাদ্যের মৌসুমী বিক্রেতারাও।

বিভিন্ন এলাকার পাশাপাশি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ হলের উল্লোদিকেও তাদের দেখা মেলে। রাস্তার ফুটপাতে তাজা ঘাস নিয়ে বসেন তারা। এদের কেউ পেশায় ভ্যানচালক, কেউবা অন্য কাজও করেন। কোরবানির ঈদ এলেই নেমে পড়েন চার-পাঁচদিনের এ ব্যবসায়।

অন্য দিনের মতো রোববার (১৮ জুলাই) সন্ধ্যা বেলায় দেখা মিলল তাদের। ফুটপাতে স্তুপ করে সাজিয়ে রেখেছেন তাজা ঘাস।

তাজা খাস বিক্রি করার সময় কথা হয় শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার বাসিন্দা নুরুল ইসলামের সঙ্গে। দীর্ঘ ১২ বছর ধরে করে আসা মৌসুমী এ ব্যবসায় লাভ তার ভালোই।

তিনি বলেন, আমাদের সবার বাড়ি শেরপুরের শ্রীবরদীতে। প্রায় সবাই ভ্যানচালক। কোরবানির ঈদ এলেই এলাকার পার্ক ও আশেপাশে মাঠ থেকে তাজা খাস নিজেরা কেটে এইখানে বিক্রি করে থাকি। এ কাজ দীর্ঘ ১২ বছর ধরে করে আসছি।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও আশেপাশের মাঠগুলো থেকে তাজা ঘাস সংগ্রহ করেন তারা। উদ্যানের ঘাস কাটার সময় নিরাপত্তা কর্মীদের চা-নাস্তা খাওয়ানোর নামে টাকা দিয়ে ম্যানেজ করতে হয়।

সারি সারি ঘাসে বস্তার পাশাপাশি কাঁঠালপাতাও রেখেছেন তারা। কাঁঠালপাতার চাহিদাও বেশ।

বিক্রেতারা বলেন, তিনদিন থেকে তারা এখানে গো-খাদ্য নিয়ে বসছেন। দু'দিন তেমন বিক্রি না হলেও রোববার (১৮ জুলাই) ভালো ব্যবসা হয়েছে। বস্তা প্রতি দাম নিচ্ছেন ১২০ টাকা। তবে খুচরাও বিক্রি হয়। সোমবার বিক্রি আরো বাড়বে বলে আশাবাদ তাদের।  

নুরুল ইসলাম বলেন, এই গো-খাদ্য বিক্রি করে যত লাভ হবে, চার-পাঁচজন মিলে সমান ভাগে ভাগ করে নেবেন। এই কয়েকদিন ২৪ ঘন্টার পাশাপাশি ঈদের দিন সকাল পর্যন্ত গো-খাদ্য বিক্রি করবেন তারা।

তিনি আক্ষেপ করে বলেন, গো-খাদ্যে তেমন দাম পাওয়া যায় না। লাখ লাখ টাকা দিয়ে গরু কিনলেও এখানে এসে ক্রেতারা বস্তাপ্রতি দামাদামি করেন।

২১ জুলাই দেশে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০৭২০ ঘণ্টা, জুলাই ১৯, ২০২১
ইইউডি/এজেডএস/এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa