ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ কার্তিক ১৪২৮, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

পোশাক কারখানা ছুটির অপেক্ষায় দূরপাল্লার বাস

সাগর ফরাজী, সাভার করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০১ ঘণ্টা, জুলাই ১৮, ২০২১
পোশাক কারখানা ছুটির অপেক্ষায় দূরপাল্লার বাস ছবি: বাংলানিউজ

সাভার (ঢাকা): আর দু’দিন পরেই ঈদুল আজহা। ঈদ উপলক্ষে ছুটিতে বাড়ি ফিরবেন পোশাক শ্রমিকসহ অনেকই।

সাভারে মহাসড়ক ফাঁকা, গাড়ির কোনো চাপ নেই। অন্যদিকে, দূরপাল্লার পরিবহনগুলো সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে পোশাক কারখানাগুলো ছুটির জন্য অপেক্ষা করছে।  

জানা গেছে, গত ১৬ জুলাই দিনগত রাত থেকে বাসগুলো শিল্পাঞ্চলের অন্যতম সড়ক নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কে সাঁড়ি বদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে আছে। অন্যদিকে, সড়কে বাস না থাকায় দুর্ভোগে পড়েছে ঘরমুখো অল্পসংখ্যক মানুষ।

রোববার (১৮ জুলাই) দুপুরে সেই মহাসড়কের পল্লীবিদ্যুৎ এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের উত্তরবঙ্গগামী লেনের অর্ধেক দখল করে দাঁড়িয়ে আছে বাসগুলো। দু’টি করে বাস পাশাপাশি দাঁড়িয়ে আছে। কোনো কোনো বাসের ভেতরে রক্ষণাবেক্ষণ জন্য লোক আছে আবার কোনোটিতে নেই।

এ সময় মহাসড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা কয়েকটি বাসের স্টাফদের সঙ্গে কথা হয়। তারা জানান, ‘লকাডাউন’র কারণে অনেকদিন ভাড়া মারতে পারেননি। ঈদের জন্য তারা চেয়ে ছিলেন। এবার ঈদের ছুটি হবে আর সেজন্য গাড়ি নিয়ে সড়কের পাশে অবস্থান করছেন, যেন সবার আগে যাত্রী নিয়ে যেতে পারেন। আর অনেক বাস রিজার্ভ করাও রয়েছে।

সোমা পরিবহন যাবে বগুড়ায়। পোশাক কারখানার যাত্রী পেতে শনিবার (১৭ জুলাই) থেকে সড়কের পাশে সিরিয়ালে দাঁড়িয়ে আছে।  

বাসটির কন্ডাক্টর মনির বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের বাস বন্ধ ছিল অনেক দিন। তাই ঈদের ভাড়া মেরে কিছু টাকা রোজগার করতে চাই। এই সুযোগে যদি কিছু না কামাইতে পারি তাহলে ঈদের পরে তো আবার লকডাউন তখন তো আবার বসেই খেতে হবে। যাত্রী পাওয়া নিয়ে যদি কোনো সমস্যা না হয়, তাই এখানে বাস রাখছি।

জামালাপুর যাবে মাহি নামের আরেক বাস। বাসটির চালক বাংলানিউজকে বলেন, শুধু এই ঈদের ট্রিপ মারতেই বাড়ি থেকে টাকা ধার করে নিয়ে এখানে বাসের সঙ্গে দু’দিন যাবত আছি। কারখানা খোলার পর বাসে ভাড়া মেরে সেই টাকা পরিশোধ করবো। কিন্ত প্রায়ই পুলিশ এসে গাড়ি সড়াতে বলে। আমরা এখন কী করবো। বাস রেখে পুলিশের ভয়ে পালিয়ে বেরাই।

এ বিষয়ে সাভার হাইওয়ে থানার পরিদর্শক (ওসি) সাজ্জাদ করিম বাংলানিউজকে বলেন, কিছু সংখ্যক বাস সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে আছে। সেখানে জেলা পুলিশ দায়িত্বে আছেন। তারা বিষয়টি দেখবেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৫০০ ঘণ্টা, জুলাই ১৮, ২০২১
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa