ঢাকা, রবিবার, ১ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

উত্তরায় ফাঁকা পশুর হাট, ক্রেতা সমাগম নেই

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬২৯ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০২১
উত্তরায় ফাঁকা পশুর হাট, ক্রেতা সমাগম নেই

ঢাকা: পবিত্র ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে রাজধানীর উত্তরা ১৭ নম্বর সেক্টরের বৃন্দাবন থেকে উত্তর পাকুরিয়ার মাথা পর্যন্ত খালি জায়গায় গড়ে উঠেছে অস্থায়ী পশুর হাট। ধু ধু খালি জায়গায় বাঁশ ও তাঁবু টানিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে কোরবানির পশু রাখার স্থান।

তবে ঈদের সপ্তাহখানেক আগে এই হাটের অধিকাংশ জায়গা ফাঁকা পড়ে আছে। ব্যাপারিরা গুরু নিয়ে আসতে শুরু করেছেন। হাটে কোরবানির পশু খুব বেশি না ওঠায় ক্রেতা সমাগম অনেক কম। দুই-একজন ক্রেতা হাটে এলেও দাম শুনে চলে যাচ্ছেন। সবমিলিয়ে পশুর হাটটি এখনও জমে ওঠেনি।

কুষ্টিয়া থেকে ২৮টি গরু নিয়ে উত্তরা ১৭ নম্বর সেক্টরের এই হাটে এসেছেন ব্যাপারি মো. হেলাল। বুধবার (১৪ জুলাই) ভোর ৬টায় হাটে ঢুকেছেন তিনি।

বাংলানিউজকে হেলাল বলেন, গ্রামের গৃহস্থদের কাছ থেকে একটা দুইটা করে গরু কিনেছি। আর আমার গোয়ালের দুটো মিলিয়ে মোট ২৮টি গরু নিয়ে এই হাটে এসেছি। এখনও হাট জমেনি। ব্যাপারিরা গরু নিয়ে কেবল আসছেন।

তিনি বলেন, গতবার ৩০টি গরু নিয়ে এই হাটে এসেছিলাম। সব বিক্রি  করে বাড়ি ফিরেছিলাম।  ভালো দাম পেয়েছি। তাই এবারও এই হাটে এসেছি। এখন দেখি আল্লাহ কপালে কী রাখছে!

বগুড়ার শেরপুর থেকে ১৭টি গরু নিয়ে এসেছেন ব্যাপারি জয়নাল আবেদিন। তিনি বলেন, হাট এখনও জমেনি। ক্রেতার সংখ্যা খুব কম। এসে দেখে দাম করে চলে যায়। আমরাও দাম বলি। কারণ ঈদের এখনও সপ্তাহখানেক বাকি। হাটের অনেক জায়গাই এখনও খালি। আমাদের গ্রামের আরও দুই ব্যাপারি গরু নিয়ে ঢাকার দিকে রওয়ানা হয়েছে। তাদের মত অনেকেই এখনও আসছে।

উত্তরার বাসিন্দা ব্যবসায়ী আহসানুন হক বাংলানিউজকে বলেন, প্রজেক্টের পাশে পশুর হাট বসেছে। তাই বাজার কেমন তা যাচাই করতে এসেছি। এখনও হাটে গরু আসেনি। তাই ব্যাপারিরাও দাম কমাতে চাইছেন না।

বুধবার কঠোর লকডাউনের শেষ দিন। ১৫ জুলাই থেকে লকডাউন পরিস্থিতি কিছুটা শিথিল হতে যাচ্ছে। ব্যাপারি ও ক্রেতারা জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণেও অনেক ক্রেতারা হাটে আসছেন না। লকডাউন শিথিল হলে পশুর হাটে ক্রেতার সংখ্যা বাড়বে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৩ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০২১
এসজেএ/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa