ঢাকা, সোমবার, ২ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

বিধি-নিষেধ শিথিলের আগেই বাংলাবাজার-শিমুলিয়ায় ভিড়

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০২ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০২১
বিধি-নিষেধ শিথিলের আগেই বাংলাবাজার-শিমুলিয়ায় ভিড়

মাদারীপুর: বিধি-নিষেধ শিথিল হওয়ার একদিন আগে বুধবার (১৪ জুলাই) সকাল থেকেই বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরিতে ঘরমুখো মানুষের ভিড় রয়েছে। ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে ঘরে ফিরতে শুরু করেছেন সাধারণ মানুষ।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) বাংলাবাজার ঘাট সূত্রে জানা গেছে, বুধবার (১৪ জুলাই) সকাল থেকে নৌরুটে চারটি রো রো ফেরিসহ ১২টি ফেরি চলাচল করছে। বৃহস্পতিবার থেকে লকডাউন শিথিলের ঘোষণা আসার পর থেকেই ঘাটে যাত্রীদের উপস্থিতি বেড়ে গেছে। সকাল থেকে ঘরমুখো মানুষের কিছুটা চাপ রয়েছে নৌরুটে। এদিকে গত কয়েক দিন ধরে নৌরুটের পদ্মা নদীতে স্রোতের তীব্রতা বেড়েছে। ফলে ফেরি চলাচল কিছুটা ব্যাহত হচ্ছে। স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে পদ্মা পার হতে দেড় ঘণ্টা বেশি লাগছে। এতে করে কমেছে ফেরির দৈনন্দিন ট্রিপ। ঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় থাকা যানবাহনের সংখ্যাও বাড়ছে।

বাংলাবাজার ঘাটের স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকাল থেকে হঠাৎ করেই নৌরুটে যাত্রী ও যানবাহনের ভিড় দেখা গেছে। ঢাকা থেকে আসা যাত্রীদের প্রচুর চাপ দেখা গেছে ঘাটে। শিমুলিয়া থেকে ছেড়ে আসা প্রতিটি ফেরিতে যানবাহনের পাশাপাশি সাধারণ যাত্রীদের প্রচুর ভিড় রয়েছে। বাংলাবাজার ঘাটে আটকে আছে পণ্যবাহী ট্রাক। এছাড়া ফেরিঘাটে অ্যাম্বুলেন্সসহ ঢাকাগামী ছোট যানবাহনের ভিড় রয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসির বাংলাবাজার ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক মো. সালাহউদ্দিন আহমেদ জানান, পদ্মায় স্রোত থাকায় ফেরি চলাচলে ধীর গতি রয়েছে। ফলে ঘাটে আটকে থাকা যানবাহনের সংখ্যা বাড়ছে। সেই সঙ্গে জরুরি কাজে যাওয়া মানুষের সংখ্যাও বাড়ছে। শিমুলিয়া থেকে ফেরিতে কিছু কিছু যাত্রী আসছেন। বাংলাবাজার ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীদের চাপ নেই। পণ্যবাহী ট্রাক, অ্যাম্বুলেন্স ও জরুরি যানবাহন পার হচ্ছে।


বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৮ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০২১
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa