ঢাকা, শনিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৮, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

শিশু হাসনাইনকে শনাক্তে ডিএনএ দিলেন বাবা-মা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫০ ঘণ্টা, জুলাই ১১, ২০২১
শিশু হাসনাইনকে শনাক্তে ডিএনএ দিলেন বাবা-মা

ঢাকা: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে সেজান জুস কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের শনাক্ত করতে ডিএনএ পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গের সামনে তৃতীয় দিনের মতো স্বজনদের নমুনা সংগ্রহ চলছে। জুস কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে সবচেয়ে কনিষ্ঠ নিখোঁজ হাসনাইনকে শনাক্তের জন্য তার বাবা-মায়ের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করেছেন সিআইডি।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৬৩ জন দাবিদারের অপজিটে ৪৫ মরদেহের শনাক্তে ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

রোববার (১১ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে সিআইডির ফরেনসিক বিভাগের বিশেষ পুলিশ সুপার রুমানা আক্তার বাংলানিউজকে এ তথ্য জানান।  

তিনি বলেন, এ পর্যন্ত আমরা দাবিদার ৬৩ জনের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করেছি ৪৫ মরদেহের জন্য। তবে একটি মরদেহের জন্য পরিবারের কয়েকজনের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। সিআইডির টিম এখনও ঢামেক হাসপাতাল মর্গে অবস্থান করছে।

এদিকে মর্গ থেকে ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা সিআইডির এক পুলিশ সদস্য জানান, যতগুলো ডিএনএ নমুনা স্বজনদের কাছ থেকে নেওয়া হয়েছে এদের মধ্যে সবচেয়ে কনিষ্ঠ হাসনাইন নামে এক শিশুর খোঁজে বাবা-মা ডিএনএ নমুনা দিয়েছে। নিখোঁজ শিশুর বয়স ১২ বছর।

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে সেজান জুস কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের পরের দিন শুক্রবার (৯ জুলাই) ঘটনাস্থল থেকে পোড়া মোট ৪৮টি মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক হাসপাতাল মর্গে পাঠায় স্থানীয় প্রশাসন।

ওইদিনই ভাইয়ের মরদেহ খুঁজতে খালার সঙ্গে এসেছিলেন তার কিশোরী বোন তানিয়া। মর্গের সামনে হাসনাইনের ছবি হাতে নিয়ে সে বলতে থাকে ওর লাশটা কী আছে? একটু খুঁজে দেন। সেই শিশু হাসনাইনকে শনাক্তের জন্য তার বাবা ফজলুর রহমান ও মা নাজমা বেগমের কাছ থেকে ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করেন সিআইডি।

এদিকে ঢামেক হাসপাতাল মর্গে মরদেহ শনাক্তের জন্য যাদের কাছ থেকে ডিএনএ নমুনা নেওয়া হয়েছে তাদের মধ্য থেকে কয়েকজনের নাম দেওয়া হলো- খাদিজা আক্তার (১৬) শনাক্তের জন্য ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার বাবা আবদুল কাইয়ুম, আমেনা আক্তার (২২) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার বাবা মুর্শিদ মিয়া, শামীম (১৪) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার বাবা ফখরুল ইসলাম, নোমান (১৮) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার বাবা আবদুল মান্নান, শাহানা আক্তার (১৮) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার বাবা নিজাম উদ্দিন, মাহমুদা আক্তার (২২) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার ভাই সুমন, নাজমা আক্তার (১৯) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার স্বামী তহিদুল ইসলাম, রিপন মিয়া (১৮) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার মা লিলি বেগ, রহিমা বেগম (৩৯) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার দুই সন্তান আরিফ ও নিপা, জাহানারা (৩৫) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার ছেলে জাকির হোসেন, নাজমা (৩৫) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার ছেলে নাজমুল হোসেন, মাহাবুর রহমান (২৮) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার ভাই হাসান শিকদার, ফাতেমা আক্তার (১৫) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার সুজন, শাহানা আক্তার (৪৪) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার ভাই সবুজ, মহিউদ্দিন (২৭) ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার ভাই-বোন তাসনুর বেগম ও সালাউদ্দিন, রাকিব হোসেন ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার বাবা কবির হোসেন, মিতু আক্তার (২৯) শনাক্তের জন্য ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন তার বাবা বেলাল আহমেদ।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৮ ঘণ্টা, জুলাই ১১, ২০২১
এজেডএস/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa