ঢাকা, সোমবার, ২ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

নৌকায় বসেই সরকারি ভাতা পেলেন চরাঞ্চলের নারীরা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪৭ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০২১
নৌকায় বসেই সরকারি ভাতা পেলেন চরাঞ্চলের নারীরা

চাঁদপুর: বর্ষায় চাঁদপুরের মেঘনা নদীর পশ্চিমে চরাঞ্চলের সড়কগুলো পানিতে তলিয়ে যায়। ভাঙনের কবলে পড়ে নদী ও খালের বিভিন্ন অংশে মানুষের বসবসা।

যে কারণে ইউনিয়ন পরিষদে এসে সরকারি ভাতা উত্তোলন করা সম্ভব হয় না। করোনাকালীন এই সময়ে চেয়ারম্যানের উদ্যোগে ইঞ্জিন চালিত নৌকাতে বসেই এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে বয়স্ক, বিধবা, মাতৃত্বকালীন ও প্রতিবন্ধী ভাতা নিয়েছেন নারীরা।

শনিবার (১০ জুলাই) সকাল ১০টা থেকে বিকেল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত চাঁদপুর সদর উপজেলার রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের বাঁশগাড়ী এলাকায় নৌকায় সুবিধাভোগী ৮ থেকে ১০ জন করে নারীদের উঠিয়ে ভাতার অর্থ তুলেদেন চেয়ারম্যান হযরত আলী বেপারী। টাকা উত্তোলন শেষে আবারও গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়া হয় তাদের।

এভাবে গত ৪ দিন ইউনিয়ন পরিষদ এলাকা, মুগাদি, গোয়াল নগর, রায়েরচর এলাকায় ঘুরে ঘুরে ভাতা বিতরণ করেছেন চেয়ারম্যান। বিতরণকালে সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

চেয়ারম্যান হযরত আলী বেপারী বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের ইউনিয়নে বয়স্কা ভাতা পাচ্ছেন ৬৫০ জন, বিধবা ভাতা ২৩২ জন, প্রতিবন্ধী ভাতা ১৪৪ জন এবং মাতৃত্বকালীন ভাতা এককালীন ১২৭ জন। চরাঞ্চলে পদ্মা-মেঘনার ভাঙনে যোগাযোগ ব্যবস্থা খুবই খারাপ। যে কারণে ইউনিয়ন পরিষদে এসে ভাতা উত্তোলন করা সম্ভব না। এ কারণে ইউনিয়নের ৯ ওয়ার্ডের জন্য ৪ এলাকায় ব্যাংক এশিয়ার শাখা করে দিয়েছি। সেখান থেকে সুবিধাভোগীরা তাদের ভাতা উত্তোলন করবে। আর যারা বিচ্ছিন্ন চরে তাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে নৌকা উঠিয়ে ভাতা বিতরণ করছি।

তিনি আরো বলেন, করোনাকালীন সময়ে সরকার কর্মহীন ৭০০ জনকে ৫০০ টাকা করে দিয়েছে। মঙ্গলবার থেকে ওইসব অর্থ তাদের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়া হবে। এছাড়াও ঈদের আগে সরকার দুস্থ পরিবারকে বিজিএফ’র মাধ্যমে সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছে। সেটিও খুব শিগগিরই চলে আসবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪২ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০২১
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa