ঢাকা, বুধবার, ১১ কার্তিক ১৪২৮, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

শিশু মনে হলেই তো হবে না, প্রমাণ দিতে হবে: প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪৯ ঘণ্টা, জুলাই ৯, ২০২১
শিশু মনে হলেই তো হবে না, প্রমাণ দিতে হবে: প্রতিমন্ত্রী নারায়ণগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী | ছবি: শাকিল আহমেদ

নারায়ণগঞ্জ থেকে: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে সজীব গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান সেজান জুস কারখানায় কোনো শিশুকে শ্রমিক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়ে থাকলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান।

তিনি বলেন, এই কারখানায় ১৮ বছরের নিচে কোনো শিশু শ্রমিক হিসেবে কাজ করেছে কিনা, আমার জানা নেই।

তাদের শিশু মনে হলেই তো হবে না, তারা যে শিশু এ বিষয়ে প্রমাণ দেখাতে হবে।

শুক্রবার (০৯ জুলাই) সন্ধ্যার পর ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী।

বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেন, কারখানার শ্রমিকদের মধ্যে কেউ শিশু আছে কিনা তার প্রমাণ দেখাতে হবে। যদি শিশুকে শ্রমিক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়, তাহলে সংশ্লিষ্টদের বিষয়ে অবশ্যই আমরা ব্যবস্থা নেবো। এখানে যদি শিশুশ্রম থেকেও থাকে তা সংশ্লিষ্টদের ত্রুটি হিসেবে বিবেচিত হবে। আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেবো।

তিনি বলেন, কারখানায় শিশু শ্রমিক কাজ করেছে কিনা এমন কোনো তথ্য আমরা এখনও পায়নি। আমাদের লোকরা কাজ করছেন। আমাদের একটি টিম এখানে কাজ করছে, তারাও এখনও এ বিষয়ে জানাতে পারেনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আগুনের কারণ অনুসন্ধানে আমরা একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। এখন পর্যন্ত আমরা হাসপাতালে যাদের দেখে এসেছি, যারা চিকিৎসা নিচ্ছে তাদের প্রত্যককে আমরা ৫০ হাজার টাকা করে আর্থিক সহযোগিতা দেবো। আর যারা মারা গেছেন তাদের পরিবারকে ২ লাখ করে অনুদান দেওয়া হবে। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এই প্রতিষ্ঠানের মালিক থেকেও শ্রমিকদের জন্য ক্ষতিপূরণ আদায়ের ব্যবস্থা আমরা করবো।

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় সজীব গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান সেজান জুস কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার ১৯ ঘণ্টা পর কারখানার ভেতর থেকে ৪৯টি দগ্ধ মরদেহ বের করে আনা হয়। মরদেহগুলো ফায়ার সার্ভিসের চারটি অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

এর আগে, এ ঘটনায় তিনজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়।  এ নিয়ে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫২ জনে। এছাড়া আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৫০ জন।

আরও পড়ুন>>
>>> রূপগঞ্জে অগ্নিকাণ্ড: অর্ধশতাধিক মৃত্যুর ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন
>>>নিয়ন্ত্রণে আসেনি সেজান জুসের কারখানার আগুন, নিহত ৩
>>সেজান জুসের কারখানায় আগুন: কয়েকজন ঢামেকে ভর্তি
>>>রূপগঞ্জে সেজান জুসের কারখানায় আগুন, নিহত ২
>>>১৫ ঘণ্টাও নেভেনি আগুন, ফায়ার সার্ভিসের ক্লান্তিহীন চেষ্টা
>>>জুস কারখানায় অতিরিক্ত দাহ্য পদার্থ থাকায় নিয়ন্ত্রণে আসছে না আগুন
>>>জীবিত নেই কেউ, প্রিয়জনের খবর পেতে স্বজনদের অপেক্ষা


বাংলাদেশ সময়: ২১৪৫ ঘণ্টা, জুলাই ০৯, ২০২১
এসজেএ/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa