ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ কার্তিক ১৪২৮, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুট: প্রতিদিন ৫৫ শতাংশ রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০১ ঘণ্টা, জুলাই ৮, ২০২১
পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুট: প্রতিদিন ৫৫ শতাংশ রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার

মানিকগঞ্জ: বাংলাদেশে মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বন্ধ রয়েছে দেশের পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুট। এ রুটে শুধুমাত্র জরুরি সেবায় নিয়োজিত গাড়ি পারাপার করা হচ্ছে।

এতে করে প্রতিনিয়ত কয়েক লক্ষাধিক টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার।

চলতি মাসে প্রথম ধাপে কঠোর লকডাউনের কারণে জরুরি সেবায় নিয়োজিত গাড়ি ছাড়া অন্যসব যানবাহন বন্ধ থাকায় ১ জুলাই থেকে ৭ জুলাই পর্যন্ত কতোগুলো গাড়ি পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে পারাপার হয়েছে এ পরিসংখ্যান মিললেও সরকার রাজস্ব পেয়েছে কতো টাকা এমন তথ্য দিতে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) ঢাকা অফিসের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ আরিচা কার্যালয়কে সহায়তার জন্য সুপারিশ করলেও মেলেনি সেই কাঙ্ক্ষিত তথ্য।

জানা যায়, ৩০ জুন করোনা ভাইরাস জনিত (কোভিড-১৯) এর বিস্তার রোধকল্পে সার্বিক কার্যাবলি ও চলাচলে বিধিনিষেধ আরোপে- আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিষেবা যেমন– কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রাংশ ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্য সেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদু্যৎ, পানি গ্যাস, জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরসমূহের (স্থলবন্দর, নদীবন্দর ও সমুদ্রবন্দর কাযর্ক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন প্রাতিষ্ঠানিক পরিচয়পত্র প্রদর্শন সাপেক্ষে যাতায়াত করতে পারবে।  

নৌপথ পারাপারে একই আদেশ থাকলেও জরুরি সেবায় নিয়োজিত যানবাহন এর আওতামুক্ত। ১ জুলাই ৩ হাজার ৪৯১টি, ২ জুলাই ২ হাজার ৭৮০টি, ৩ জুলাই ২ হাজার ৯৪৫টি, ৪ জুলাই ৩ হাজার ৪০২টি, ৫ জুলাই ৩ হাজার ৭০৩টি, ৬ জুলাই ৪ হাজার ৩০১টি, ৭ জুলাই ৪ হাজার ৬৭৭টি যানবাহন পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুট দিয়ে পারাপার হয়েছে যা অন্য সময়ের তুলনায় ৪৫ শতাংশ ।

নাম প্রকাশ না করার মর্মে এক বিআইডব্লিউটিসির কর্মচারি বলেন, আমরা যারা ছোট পোস্টে চাকরি করি তারা সকল অপরাধ দেখার পরও চুপ করে থাকতে হয়। আপনি যে তথ্য চাচ্ছেন এ তথ্য ডিজিএম ছাড়া অন্য কেউ  দিতে পারবে না। তবে সেও মনে হয় এ তথ্য দিবে না কারণ এখানে ঝামেলা আছে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) অরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম জিল্লুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, কী পরিমাণ গাড়ি পার হয়েছে এমন তথ্য নিতে পারবেন তবে কতো টাকা রাজস্ব পেয়েছে সরকার এমন তথ্য আমি দিতে পারবো না ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া।  

বিআইডব্লিউটিসি ঢাকা অফিসের বাণিজ্য বিভাগের ডিরেক্টর আশিকুজ্জামান আপনাকে মোবাইলে তথ্য দিয়ে সহায়তার করার জন্য বলেছেন কীনা এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমাকে ফোন দিয়েছিল তবে রাজস্বের বিষয়ে কোনো কথা বলেনি। আমরা জরুরি সেবায় নিয়োজিত যানবাহন ছাড়া অন্য কোন গাড়ি পারাপার করছি না আর এসব যানবাহন পারাপারের জন্য পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ১৫টি ফেরির মধ্যে ৮টি দিয়ে যানবাহন পারাপার করছি।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৪ ঘণ্টা, জুলাই ০৮, ২০২১
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa