ঢাকা, সোমবার, ৯ কার্তিক ১৪২৮, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

লালমনিরহাটের সলেডি স্প্যার বাঁধ পরিদর্শনে ডিসি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬২০ ঘণ্টা, জুলাই ২, ২০২১
লালমনিরহাটের সলেডি স্প্যার বাঁধ পরিদর্শনে ডিসি সলেডি স্প্যার বাঁধ পরিদর্শনে ডিসি। ছবি: বাংলানিউজ

লালমনিরহাট: হঠাৎ তিস্তার পানি কিছুটা বেড়ে যাওয়ায় ভাঙনের মুখে পড়ে লালমনিরহাটের সলেডি স্প্যার বাঁধ ২। বাংলানিউজে প্রকাশিত খবর দেখে বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে বাঁধটি পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) আবু জাফর।

শুক্রবার (২ জুলাই) দুপুরে বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে একাই বাঁধ পরিদর্শনে নদীর পাড়ে যান জেলা প্রশাসক আবু জাফর।
 
এর আগে বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) বিকেলে বাংলানিউজে ‘তিস্তায় পানি বাড়তেই ভাঙনের মুখে স্প্যার বাঁধ’ শিরোনামে একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

স্থানীয়রা জানান, কয়েকদিনের ভারী বর্ষণ ও উজানের পাহাড়ি ঢলে তিস্তার পানি প্রবাহ বেড়ে যায়। জন্মলগ্ন থেকে খনন না করায় পলি ও বালু জমে তিস্তা নদীর তলদেশ ভরাট হয়ে গেছে। ফলে সামান্য পানি বাড়লে তিস্তা নদীর দুই কূল উপচিয়ে লোকালয়ে পানি প্রবেশ করে। এতে তিস্তার তীরবর্তী নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে বেশকিছু পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।  

গত ২৪ ঘণ্টায় সলেডি স্প্যার বাঁধ-২ এর উজানে চৌরাহা মাদরাসা এলাকায় ৬টি বসতভিটা ও কয়েক একর ফসলি জমি বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙনের মুখে পড়েছে শতশত বসতবাড়ি। ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তরা খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। এছাড়া সদর উপজেলার চর গোকুন্ডায় ভাঙন শুরু হয়েছে। পূর্বপাড়া গ্রামে গত দুই দিনে ২-৩টি বাড়ি তিস্তায় বিলীন হয়ে গেছে।

বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) বিকেলে বাংলানিউজে ‘তিস্তায় পানি বাড়তেই ভাঙনের মুখে স্প্যার বাঁ’ শিরোনামে একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনটি দেখে শুক্রবার (২ জুলাই) দুপুরে স্থানীয় উপজেলা বা ইউনিয়ন পরিষদকে না জানিয়ে একাই স্প্যার বাঁধ-২ এবং নদী ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শনে যান জেলা প্রশাসক আবু জাফর। বৃষ্টিকে উপেক্ষা বরে ছাতা হাতে পুরো স্প্যার বাঁধ-২ ঘুরে ঘুরে দেখেন তিনি। এরপর ভাঙনকবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শন শেষে জেলা প্রশাসক আবু জাফর বাংলানিউজকে বলেন, স্প্যার বাঁধ রক্ষায় প্রয়োজনীয় জিও ব্যাগ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কাছে জমা রয়েছে। জরুরি প্রয়োজন দেখা দিলেই ব্যবস্থা নিতে তাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বর্ষাকাল নদীপাড়ের জেলা হিসেবে আমাদের বন্যা মোকাবিলা করতে হবে। বন্যা মোকাবিলায় আমরা প্রস্তুত রয়েছি। ভাঙনের মুখে পড়া বসতবাড়ি রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে নদীপাড়ের তথ্য সার্বক্ষণিক মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হচ্ছে।

** তিস্তায় পানি বাড়তেই ভাঙনের মুখে স্প্যার বাঁধ

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৫ ঘণ্টা, জুলাই ০২, ২০২১
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa