ঢাকা, রবিবার, ৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৫ জুলাই ২০২১, ১৪ জিলহজ ১৪৪২

জাতীয়

দুর্ভোগ সয়ে রাজধানী ছাড়ছেন মানুষ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫২০ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০২১
দুর্ভোগ সয়ে রাজধানী ছাড়ছেন মানুষ দুর্ভোগ সয়ে রাজধানী ছাড়ছেন মানুষ। ছবি: জি এম মুজিবুর

ঢাকা: করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দূরপাল্লার গণপরিবহন বন্ধ করার পরেও কোনোভাবেই ঠেকানো যাচ্ছে না মানুষের চলাচল। সব বাধা পার হয়ে দুর্ভোগ সয়ে রাজধানী ছাড়ছেন মানুষ।

 

বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত গাবতলী টার্মিনাল থেকে দূরপাল্লার যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। হঠাৎ করে যানবাহন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সরেজমিনে রাজধানীর গাবতলী বাস টার্মিনাল ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

গত সোমবার (২১ জুন) রাজশাহী থাকে ঢাকায় আসেন আব্দুর রাজ্জাক। ডায়াবেটিসে পায়ে পচন ধরায় ডাক্তার দেখাতে ঢাকা আসেন। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, মিরপুর ডায়াবেটিকস হাসপাতালে ডাক্তার দেখিয়ে বাড়ি ফিরতে গাবতলীতে এসেছি। এখানে এসে দেখছি রাজশাহী যাওয়ার কোনো গণপরিবহন নেই। এখন আমাকে ভেঙে ভেঙে যেতে হবে। আল্লাহ জানে কবে শেষ হবে এই বিপদ।

ব্যবসায়ী সোলায়মান যাবেন সাভার ইপিজেড। মিরপুর এক নম্বর বাংলা কলেজ থেকে এসেছেন গাবতলী। গণপরিবহন না পেয়ে হেঁটে হেঁটে যাচ্ছেন আমিনবাজার।
তিনি বলেন, গাবতলী থেকে পায়ে হেঁটে বা রিকশায় করে যাবো আমিনবাজার। ওখান থেকে বাসে করে ইপিজেড যাবো। যেসব বাসে করে যাবো এসব বাসে করোনার কোন বালাই নেই। এক সিটে দুই জন করে যাত্রী নিয়ে বাসগুলো যাতায়াত করছে।

তিনি আরও বলেন, গণপরিবহন বন্ধ হওয়ার আগে মিরপুর বাংলা কলেজ থেকে সাভার ইপিজেড যেতে আমার খরচ হতো ৬০ টাকা। এখন আমার খরচ হয় ১৫০ টাকারও বেশি। এই বাড়তি খরচ আমাকে কে দেবে, কোথায় পাবো? 

গাবতলীতে দায়িত্বরত দারুস সালাম ট্রাফিক জোন, ট্রাফিক ইনস্পেক্টর কাজী মাহবুব আলম বাংলানিউজকে বলেন, দূরপাল্লার গণপরিবহন রাজধানী থেকে আমিনবাজারের ব্রিজে যেতেও পারবে না, আসতেও পারবে না। আন্তঃজেলা বাস মালিক সমিতির নেতা, শ্রমিক সমিতির নেতা ও মালিকদের সঙ্গে আলোচনা করে গাবতলী বাস কাউন্টারগুলো বন্ধ রাখতে বলেছি। যারা সরকারি আইন অমান্য করছে তাদের বিরুদ্ধে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি।

এর আগে, সোমবার (২১ জুন) করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সার্বিক কার্যাবলী/চলাচলের বিধিনিষেধ আরোপ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে। প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী মানিকগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, গাজীপুর, মাদারীপুর, রাজবাড়ী, গোপালগঞ্জ জেলাগুলোতে সার্বিক কার্যাবলী (জনসাধারণের চলাচলসহ) ২২ জুন সকাল ৬টা থেকে আগামী ৩০ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এ কারণে ঢাকা থেকে কোনো দূরপাল্লার বাস ছাড়ছে না এবং কোনো দূরপাল্লার বাস ঢাকায় প্রবেশও করতে পারছে না।  

বাংলাদেশ সময়: ১৫২০ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০২১
এমএমআই/এমআরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa