ঢাকা, রবিবার, ৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৫ জুলাই ২০২১, ১৪ জিলহজ ১৪৪২

জাতীয়

চমস্কিকে ফেসবুক লাইভে এনে তোপের মুখে চট্টগ্রামের তরুণ!

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২১১ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০২১
চমস্কিকে ফেসবুক লাইভে এনে তোপের মুখে চট্টগ্রামের তরুণ!

আধুনিক ভাষাতত্ত্বের জনক ও প্রখ্যাত দার্শনিক নোয়াম চমস্কি বাংলাদেশি এক তরুণের ফেসবুক লাইভে এসে বিব্রত হয়েছেন। চমস্কি একঘণ্টা ধরে অপেক্ষা করে ৫ মিনিট লাইভে থেকেই চলে গেছেন।

শুধু তাই নয়, এই ফেসবুক লাইভ আলোচনা নাকি একটি পোশাকের দোকানের পৃষ্ঠপোষকতায় হয়েছে। ফেসবুক লাইভে সেই পোশাকের দোকানের নাম উল্লেখ করা হয়। বিষয়টিতে প্রচণ্ড খেপেছেন নেটিজেনরা।

মিরাজ রিপন নামের চট্টগ্রামের এক তরুণ নোয়াম চমস্কিকে রাজি করান ফেসবুক লাইভের জন্য। জানা গেছে, বিভিন্ন সময় নানা ধরনের মেইল চালাচালির পর চমস্কিকে ফেসবুক লাইভের জন্য রাজি করানো হয়। জুন ২৩ তারিখ চমস্কি ফেসবুক লাইভের জন্য তারিখ দেন।

২৩ জুন ম্যাসাচুসেটস সময় রাত ৮টায় অনুষ্ঠান। কিন্তু ডে লাইট সেভিংস না বুঝে রিপন একঘণ্টা দেরি করেন। ওদিকে চমস্কি বসে আছেন। অধৈর্য হয়ে চমস্কি মেইল করেন, 'am waiting, Are we scheduled for now?'

প্রশ্নটা না বুঝেই সোশ্যাল মিডিয়ায় রিপন সবাইকে জানান ও ফেসবুক প্রফাইল থেকে শেয়ার দিয়ে বলেন, 'চমস্কি ইন্টারভিউ এর জন্য অধীর আগ্রহে বসে আছেন!' এরপর একঘণ্টা পরে লাইভে সংযুক্ত হয়ে কয়েকটি প্রশ্ন করেন মিরাজ রিপন। চমস্কি তার প্রশ্নের উত্তর সেই অর্থে দিতে অপারগ। কেননা তার অন্যত্র শিডিউল দেওয়া রয়েছে। ৫ মিনিটেই ওই লাইভ শেষ হয়ে যায়।

বিখ্যাত আলোকচিত্রী শহীদুল আলম ওই তরুণকে উদ্দেশ করে লেখেন, আপনি লিখেছেন যে 'নোয়াম চমস্কির আকস্মিক কিছু কর্মসূচির' কারণে আপনার অনুষ্ঠানে থাকতে পারেননি। এটি মিথ্যা। আপনি নির্বোধের মতো ও ক্ষমার অযোগ্য ভুল করেছেন এবং তার (চমস্কি) ওপর দোষ না চাপিয়ে আপনার তা স্বীকার করা উচিত। এটি খুবই অনৈতিক। তাকে অনুষ্ঠান থেকে চলে যেতে হচ্ছে জেনেও আপনি যেভাবে অনুষ্ঠান চালিয়েছেন তা অত্যন্ত অসম্মানজনক ও বিব্রতকর।

ফেসবুকে লাইভটি দেখে নেটিজেনরা মিরাজ রিপনের এহেন কর্মকাণ্ডে ক্ষিপ্ত হয়ে অনেকেই বলছেন, 'নোয়াম চমস্কির মতো বিশ্বখ্যাত একজন পণ্ডিতের মর্ম এই তরুণ বোঝে নাই। যদি বুঝতো তাহলে মোহর ফ্যাশনের স্পন্সর লাগাত না। এই ছেলে নোম চমস্কির নাম জানে তার খ্যাতির কিছু বিষয় হয়তো জানে কিন্তু তার লেভেলটা এখন পর্যন্ত অনুধাবন করতে পারেনি। এটা আমাদের দেশের জন্য অসম্মানজনক ঘটনা। ' 

ফেসবুক লাইভে তার শারীরিক ভাষা নিয়েও নেটিজেনরা প্রশ্ন তুলেছেন। নেটিজেনরা বলছেন রিপন মিরাজ চমস্কি চমস্কি বলে যাচ্ছিলেন। তিনি হয়তো জানেন না পশ্চিমা সংস্কৃতি অনুযায়ী কারো নাম ধরে ডাকতে হলে তার পূর্বে, মিস, মিসেস বা মিস্টার যোগ করতে হয়। যেটি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক পত্র-পত্রিকায় দেখা যায়।

প্রথমের দিকে নিজের অবস্থান নিয়ে তর্কে মেতে উঠলেও শেষ পর্যন্ত সকলের নিকট ক্ষমা চেয়েছেন ওই তরুণ।  

নোয়াম চমস্কি বাংলাদেশে প্রথমবার লাইভে আসছেন এমন কথা প্রচার করেছেন চট্টগ্রামের তরুণ রিপন মিরাজ। কিন্তু এটি সত্য নয়। বাংলাদেশে প্রথমবার গ্যোটে ইনস্টিটিউটে মহাশ্বেতা দেবীর সঙ্গে লাইভ ভিডিওতে কথা বলেন তিনি। সূত্র: কালের কণ্ঠ

বাংলাদেশ সময়: ১২০৮ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০২১
নিউজ ডেস্ক

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa