ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৮, ০৫ আগস্ট ২০২১, ২৫ জিলহজ ১৪৪২

জাতীয়

বাবার হাত থেকে মাকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল ছেলের!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫০ ঘণ্টা, জুন ২৩, ২০২১
বাবার হাত থেকে মাকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল ছেলের!

বরগুনা: ধারালো অস্ত্রের কোপ থেকে মাকে বাঁচাতে গিয়ে বাবার হাতে খুন হয়েছে সুমন (১৩) নামে এক কিশোর। বুধবার (২৩ জুন) সকাল ১১টার দিকে বরগুনার তালতলী উপজেলা শহরের টিঅ্যান্ডটি রোডের কালিবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।



নিহত সুমন তালতলী সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্র।

স্থানীয়রা জানান, তালতলী উপজেলা শহরের টিঅ্যান্ডটি সড়কের আসাদুল খাঁনের সঙ্গে তার স্ত্রী সেলিনা বেগমের পারিবারিক বিষয় নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলেছিল। বুধবার সকাল ১১টার দিকে ওই দম্পতি কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় ছেলে সুমন বাড়িতে ছিল না। প্রাইভেট পড়তে তালতলী সরকারি মাধ্যমিক স্কুলে যায়। সুমন বাড়িতে এসেই দেখে তার বাবা আসাদুল খাঁন মা সেলিনাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে যাচ্ছেন। এ সময় ছেলে বাবাকে ফেরাতে মায়ের সামনে গিয়ে দাঁড়ায়। ঠিক ওই মুহূর্তেই ধারালো অস্ত্রের কোপ স্ত্রী সেলিনার শরীরের না লেগে ছেলে সুমনের কপালে গিয়ে লাগে। মুহূর্তের মধ্যেই ছেলে সুমন মাটিয়ে লুটিয়ে পড়ে। তাৎক্ষণিক ছেলের অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে বাবা নিজেই সুমনকে আমতলী হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে হাসপাতালের চিকিৎসক কেএম তানজিরুল ইসলাম ছেলে সুমনকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। ছেলের মৃত্যুর খবর শুনে তাৎক্ষণিক তিনি পালিয়ে যায়।

এদিকে বাবা হাতে ছেলের নিহত হওয়ার ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। নিহত সুমনের সহপাঠীরা ঘাতক বাবার দৃষ্টান্তমূলক শান্তির দাবি করেছেন।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক কেএম তানজিরুল ইসলাম বলেন, সুমনকে হাসপাতালে আনার আগেই মারা গেছে।

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান মিয়া বলেন, খবর পেয়েই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ঘাতক বাবাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। খবর পেয়ে পুলিশ সুমনের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫০ ঘণ্টা, জুন ২৩, ২০২১
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa