ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৮, ০৫ আগস্ট ২০২১, ২৫ জিলহজ ১৪৪২

জাতীয়

চোর সন্দেহে যুবকের পায়ে পেরেক পুঁতে নির্যাতন!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩৫ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০২১
চোর সন্দেহে যুবকের পায়ে পেরেক পুঁতে নির্যাতন! প্রতীকী ছবি

বগুড়া: বগুড়ার কাহালু উপজেলার অঘোর মালঞ্চা গ্রামে চোর সন্দেহে যুবককের পায়ে পেরেক পুঁতে নির্যাতনের ঘটনায় এক নারীকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (১৮ জুন) সকালে আছিয়া বেগম (২৪) নামে ওই নারীকে আটক করা হয়।

আটক আছিয়া বগুড়ার কাহালু উপজেলার অঘোর মালঞ্চা গ্রামের মো. জনির স্ত্রী।

ভুক্তভোগী যুবকের নাম আতাউর রহমান শিরু (২৪)। তিনি কাহালু উপজেলার অঘোর মালঞ্চা গ্রামের মো. মজনু মিয়ারে ছেলে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) ভোরে শিরুকে কয়েকজন নারী-পুরুষ মিলে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যান ওই গ্রামের প্রবাসী মিল্টনের বাড়িতে। সেখানে তাকে গ্যাস সিলিন্ডার চুরির অপবাদ দিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করা হয়। শিরুর বাম পায়ে হাতুড়ি দিয়ে পেরেক মেরে, হাতের আঙুলে সুচ ফুটানো হয়। এরপর হাতুড়ি ও বাটাম দিয়ে শিরুকে নির্যাতন করেন ওই বাড়ির লোকজন। পরে পুলিশ শিরুকে উদ্ধার করে কাহালু হাসপাতালে ভর্তি করেন। এরপর ওইদিন রাতে পাঁচজনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করা হলে শুক্রবার সকালে পুলিশ নির্যাতনকারী আছিয়া বেগমকে আটক করে।

কাহালু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আমবার হোসেন জানান, আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়ার অধিকার কারও নেই। শিরুকে যারা নির্যাতন করেছে তাদের সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৫ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০২১
এমআরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa