ঢাকা, সোমবার, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৬ জুলাই ২০২১, ১৫ জিলহজ ১৪৪২

জাতীয়

পাঁচতলা ভবনের লিফট বাতিল করলো কমিশন

মফিজুল সাদিক, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩৪ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০২১
পাঁচতলা ভবনের লিফট বাতিল করলো কমিশন

ঢাকা: খরচ কমাতে চলমান একটি প্রকল্পের আওতায় নির্মিত পাঁচতলা ভবনের লিফট বাতিল করেছে পরিকল্পনা কমিশন। তাদের বক্তব্য, পাঁচতলা ভবনে লিফট স্থাপনের কোনো প্রয়োজনীয়তা নেই।

 

জানা গেছে, কুমিল্লায় একটি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের পাঁচতলা ভবনে একটি লিফট স্থাপনের জন্য ৪০ লাখ টাকা বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছিল। সেই প্রস্তাব বাতিল করেছে কমিশন।  

লিফট বাতিল হওয়ায় প্রস্তাবিত অতিরিক্ত বৈদ্যুতিক সাবস্টেশনও প্রয়োজন হবে না। ফলে প্রকল্পের ব্যয় কমে যাওয়ার পাশাপাশি সরকারি অর্থ সাশ্রয় হবে।  

‘বৃহত্তর কুমিল্লা জেলায় মৎস্য উন্নয়ন’ প্রকল্পের আওতায় এমন প্রস্তাব করেছিল মৎস্য অধিদপ্তর।  

সম্প্রতি পরিকল্পনা কমিশনের কৃষি, পানি সম্পদ ও পল্লী প্রতিষ্ঠান বিভাগের সদস্য (সচিব) রমেন্দ্র নাথ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভায় ওই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রকল্পটি দ্বিতীয়বারের মতো সংশোধন করা হচ্ছে।  

প্রকল্পের বেশকিছু ব্যয়ের বিষয়ে আপত্তি তুলেছে কমিশন। ২১৮ কোটি ২৪ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১৫ সালের জুলাই থেকে ২০২০ সালের জুন মেয়াদে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত ছিল। প্রকল্পের মেয়াদ জুন ২০২২ পর্যন্ত বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে। স্থানীয় মৎস্য সম্পদ ব্যবহারের মাধ্যমে মাছের উৎপাদন বৃদ্ধি কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি, মৎস্য চাষ ও মৎস্য ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে গ্রামীণ অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নয়ন এবং প্রশিক্ষণের মাধ্যমে মানব সম্পদ উন্নয়ন করা প্রকল্পের অন্যতম উদ্দেশ্য।

পরিকল্পনা কমিশন জানায়, কুমিল্লা অঞ্চলে মৎস্য চাষ ও মৎস্য খাতে উপযোগী পরিবেশ সৃষ্টির মাধ্যমে মাছের উৎপাদন বৃদ্ধি, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও দারিদ্র্য দূরীকরণের লক্ষ্যে সম্পূর্ণ জিওবি অর্থায়নে প্রকল্পটি চলমান। পরবর্তীতে প্রকল্পের ব্যয় ৬ কোটি ৯৩ লাখ টাকা কমলেও কোটি মেয়াদ ১ বছর বৃদ্ধি করা হয়। এবার প্রকল্পের ব্যয় কমে ২০৯ কোটি টাকা ধরলেও সময় আরো এক বছর বৃদ্ধি করে জুন ২০২২ সাল করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

লিফট কেনা বাবদ বৃদ্ধির প্রস্তাবের পরিপ্রেক্ষিতে পরিকল্পনা কমিশনের এক কর্মকর্তা বাংলানিউজকে বলেন, নির্মিত প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটটি ৫তলা ভবন। ফলে এই ভবনে ভবনে লিফট স্থাপনের প্রয়োজনীয়তা প্রতীয়মান হয় না। এটা অপচয় বলে মনে করি। অন্যদিকে লিফট স্থাপন না করা হলে প্রস্তাবিত অতিরিক্ত বৈদ্যুতিক সাবস্টেশনও প্রয়োজন হবে না ৷ ফলে লিফট বাদ দেওয়ার পক্ষেই সবাই মিলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

প্রকল্পের পরিচালক মোহাম্মদ আব্দুর সাত্তার বাংলানিউজকে বলেন, প্রকল্পটি সংশোধনের জন্য পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়েছিল। এখনো পুরো সিদ্ধান্ত হয়নি। আমরা একটা লিফট চেয়েছিলাম ৪০ লাখ টাকা ব্যয়ে। কিন্তু লিফট কেনার বিষয়ে কমিশন সম্মতি দেয়নি।

কমিশন সূত্র জানায়, প্রকল্পের সুফলভোগীদের অনুদান সহায়তা বাবদ সেলাই মেশিন বিতরণ কার্যক্রমসহ কতিপয় কার্যক্রম থেকে সাশ্রয়কৃত অর্থ দিয়ে চাঁদপুরের মৎস্য ডিপ্লোমা ইনিস্টিটিউট, মৎস্য অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম বিভাগের বিভাগীয় উপপরিচালকের দপ্তর এবং প্রকল্প এলাকার সরকারি মৎস্য বীজ উৎপাদন খামারসমূহের মেরামত, সংস্কার কাজের ব্যয় ৩ কোটি ২৬ লাখ টাকা বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে ।

এ বিষয়ে পরিকল্পনা কমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, অনুমোদিত প্রকল্পের সকল ব্যয়ই প্রাক্কলিত ব্যয়। প্রাক্কলিত ব্যয় থেকে অর্থের সাশ্রয়, কিংবা হ্রাস-বৃদ্ধি হতেই পারে। সাশ্রয়কৃত অর্থ ব্যয় করার কোন বাধ্যবাধকতা নেই। তাছাড়া চলমান কোভিড -১৯ পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য সরকারের অর্থ সাশ্রয়ের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। সুতরাং সাশ্রয়কৃত অর্থ দিয়ে অত্যাবশ্যক না হলে চলমান প্রকল্পের অনুমোদিত কার্যক্রমের পরিমাণ বৃদ্ধি করা সমীচীন হবে না। প্রকল্পে সাশ্রয়কৃত অর্থ দিয়ে সুফলভোগীদের অনুদান সহায়তা বৃদ্ধি করা যেতে পারে।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় জানায়, সরকারি মৎস্য বীজ উৎপাদন খামারসমূহের মেরামত/সংস্কার কাজ, যেমন; পুকুরের পাড় সংরক্ষণ, ড্রেনের ভাঙ্গা অংশ মেরামত, হ্যাচারি মেরামত ইত্যাদি কাজগুলো প্রকল্পের আওতায়।  এর ফলে দেশের সার্বিক মৎস্য উৎপাদনে সরাসরি সহায়ক ভূমিকা রাখবে । দেশের মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধিতে সরকারি মৎস্য বীজ উৎপাদন খামারসমূহের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এ খামারগুলোর অধিকাংশই জরাজীর্ণ অবস্থা। মৎস্য অধিদপ্তরের রাজস্ব বাজেটের আওতায় মেরামত, সংস্কার বাবদ যে বরাদ্দ পাওয়া যায় তা চাহিদার তুলনায় খুবই অপ্রতুল । এমতাবস্থায় সরকারি মৎস্য বীজ উৎপাদন খামারসমূহের মেরামত/সংস্কারের জন্য প্রস্তাবিত বরাদ্দ অনুমোদন জরুরি।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩২ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০২১
এমআইএস/এজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa