ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ০৩ আগস্ট ২০২১, ২৩ জিলহজ ১৪৪২

জাতীয়

নাজিরপুরের ইউএনও অফিসের সি.এ’র  বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৫৩ ঘণ্টা, জুন ১৬, ২০২১
নাজিরপুরের ইউএনও অফিসের সি.এ’র  বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ রুহুল আমীন

পিরোজপুর: পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) অফিসের সি.এ মো. রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের প্রভাব খাটিয়ে লুটপাট করছেন।

অভিযোগে জানা গেছে, তিনি গত ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে ইউএনওর (রোজি আক্তার) বাসভবনের আসবাবপত্র ক্রয়ের জন্য বরাদ্দ পাওয়া প্রায় ৫ লাখ টাকার পুরোটাই আত্মসাৎ করেছেন।  

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের সাবেক কর্মচারী মো. তৌহিদুল ইসলামসহ একাধীক কর্মচারীরা জানান, গত ২০১৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দায়িত্ব পালনের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা ভূমি অফিসের বিভিন্ন কর্মচারীদের ভাতার টাকা না দিয়ে তা তিনি আত্মসাৎ করেছেন।  

নাম প্রকাশ না করার শর্তে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের এক কর্মচারী জানান, ইউএনও অফিসের সি.এ রুহুল আমীন বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ব্যক্তির নামে ভুয়া কাজের প্রজেক্ট দেখিয়ে কাজ না করে টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেন। এছাড়া তিনি সরকারি কোয়ার্টার সরকারি টাকায় সংস্কার করে গত ৪ বছর ধরে সেখানে বসবাস করলেও কোনো ভাড়া দেন না।

ওই অফিসের একাধীক কর্মচারী জানান, ৪ বছর আগে তিনি এখানে যোগদানের পর থেকে পিরোজপুর-১ আসনের সাবেক এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএমএ আউয়ালের পারিবারিকভাবে ঘনিষ্ট পরিচয়ে প্রভাব খাটিয়ে এমন অনিয়ম ও দুর্নীতি করছেন।

এসব অভিযোগের বিষয়ে মোবাইলে কল দিয়ে জানতে চাইলে সি.এ রুহুল আমীন জানান, বাসাভাড়া তিনি নিয়মিত দিচ্ছেন। এছাড়া ফার্নিচারও ক্রয় করেছেন। তবে নির্বাচনী ডিউটির টাকার কিছু অংশ রেখেছেন অফিসের খরচের জন্য। বাকি টাকা বন্টন করা হয়েছে বলে স্বীকার করেন।  

তিনি জানান, কেউ তাকে হয়রানি করতে এমন মিথ্যা অভিযোগ দিচ্ছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১১৫২ ঘণ্টা, জুন ১৬, ২০২১
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa