ঢাকা, শনিবার, ৫ আষাঢ় ১৪২৮, ১৯ জুন ২০২১, ০৮ জিলকদ ১৪৪২

জাতীয়

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাত বন্ধে যুক্তরাষ্ট্রের সক্রিয় ভূমিকা দাবি

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৩ ঘণ্টা, মে ১৭, ২০২১
ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাত বন্ধে যুক্তরাষ্ট্রের সক্রিয় ভূমিকা দাবি

ঢাকা: ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাত বন্ধে যুক্তরাষ্ট্রকে আরো সক্রিয় ভূমিকা পালনের আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

সোমবার (১৭ মে) ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলারের সঙ্গে এক বৈঠকে তিনি এ আহ্বান জানান।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সঙ্গে এক বৈঠক করেন। বৈঠকে বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের জন্য যৌথ সাড়াদান পরিকল্পনা (জেআরপি), ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাত, কোভিড পরিস্থিতি, ভ্যাকসিনসহ বিভিন্ন বৈশ্বিক ও দ্বিপক্ষীয় ইস্যুতে তারা আলোচনা করেন।

বৈঠকে প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ফিলিস্তিন-ইসরায়েলের চলমান সংঘাত নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন। সম্প্রতি ওআইসি কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলকে এ বিষয়ে উদ্যোগ নেওয়ার কথা বলেছেন বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

তিনি ওই অঞ্চলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে অবিলম্বে রক্তপাত বন্ধে সক্রিয় ভূমিকা নেওয়ার আহ্বান জানান। এই সংকটের দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধান নীতিকে বাংলাদেশের সমর্থনকেও পুনর্ব্যক্ত করেন প্রতিমন্ত্রী।

বৈঠকে প্রতিমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের টেকসই প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশের অগ্রাধিকারে জোর দেন। একই সঙ্গে ভাসানচরে স্থানান্তরিত বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের জন্য আন্তর্জাতিক সমর্থন পেতেও জোর দেন তিনি। মার্কিন রাষ্ট্রদূত জানান, রোহিঙ্গাদের জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জেআরপিতে অবদান রাখবে। বাস্তুচ্যুত জনগণের বোঝা বহনে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে সমর্থন- সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে।

বৈঠকে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনা করতে যাওয়ার জন্য অপেক্ষারত বিপুল বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের ভিসা সমস্যা সমাধানের অনুরোধ করেন। মার্কিন রাষ্ট্রদূত এ বিষয়ে আশ্বাস দিয়েছেন।

প্রতিমন্ত্রী রাষ্ট্রদূতকে জানান, সম্প্রতি ধর্মীয় স্বাধীনতা সম্পর্কিত মার্কিন সরকার যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, এতে বাংলাদেশ নিয়ে পর্যবেক্ষণ সঠিকভাবে প্রতিফলিত হয়নি। কারণ বাংলাদেশ সরকার দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও বৈষম্য হ্রাস নিশ্চিত করার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করছে।

প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ও মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলার কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবিলায় দু’দেশের মধ্যে চলমান সহযোগিতা নিয়েও আলোচনা করেন। বাংলাদেশের জন্য দ্রুত ভ্যাকসিন প্রয়োজন বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।  

এ পরিপ্রেক্ষিতে মার্কিন রাষ্ট্রদূত জানান, তার সরকার এটি নিয়ে কাজ করছে। তিনি যুক্তরাষ্ট্র থেকে ভ্যাকসিন আনতে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোকে আঞ্চলিক উদ্যোগ নেওয়ার পরামর্শ দেন। মার্কিন সরকার বাংলাদেশি ওষুধ কোম্পানিগুলোর সঙ্গে ভ্যাকসিন তৈরির সম্ভাবনাগুলি খতিয়ে দেখছে বলেও জানান রাষ্ট্রদূত।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১০ ঘণ্টা, মে ১৭, ২০২১
টিআর/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa