ঢাকা, মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৮ মে ২০২১, ০৫ শাওয়াল ১৪৪২

জাতীয়

কৃষকদের ধান ক্রয় নিয়ে তালিকা তৈরিতে সমন্বয়হীনতার অভিযোগ 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৩১ ঘণ্টা, মে ৫, ২০২১
কৃষকদের ধান ক্রয় নিয়ে তালিকা তৈরিতে সমন্বয়হীনতার অভিযোগ  ফাইল ফটো

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলায় কৃষকের কাছ থেকে ধান ক্রয়ের প্রক্রিয়া নিয়ে তালিকা তৈরিতে সমন্বয়হীনতা ও অনিয়মের অভিযোগ তুলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জনপ্রতিনধিরা। তবে সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন সমন্বয় করেই তালিকা তৈরি করা হয়েছে।


 
জানা গেছে, এ বছর বোরো মৌসুমে বানিয়াচং উপজেলার ১৫টি ইউনিয়ন থেকে সরকারিভাবে বোরো ধান ক্রয়ের জন্য ১৫ হাজার ৯৮৯ জন কৃষকের তালিকা করেছিল উপজেলা কৃষিবিভাগ। এখান থেকে মঙ্গলবার লটারির মাধ্যমে ১ হাজার ৬৩৭ জন কৃষককে নির্বাচন করেছে খাদ্য বিভাগ। নির্বাচিত কৃষকদের কাছ থেকে ১ হাজার ৮০ টাকা মণ দরে ৩ হাজার ২৬৯ টন ধান ক্রয় করা হবে। তালিকাভুক্ত একেকজন কৃষক সর্বোচ্চ ২ টন এবং সর্বনিম্ন ১২০ কেজি ধান বিক্রি করতে পারবেন।
 
মঙ্গলবার (৪ মে) উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তারা আনুষ্ঠানিকভাবে লটারি কার্যক্রমের মাধ্যমে উপকারভোগী কৃষক নির্বাচন করেন। অনুষ্ঠানে একপর্যায়ে জনপ্রতিনিধিরা অভিযোগ করেন কার্যক্রম চলাকালে উপজেলা, কৃষি ও খাদ্যবিভাগ তাদের সঙ্গে সমন্বয় করেনি। তালিকা তৈরিতে কর্মকর্তারা অনিয়ম করেছেন বলেও অভিযোগ তোলেন তারা।
 
নাম প্রকাশ না করার স্বার্থে শীর্ষ পর্যায়ের একজন জনপ্রতিনিধি বাংলানিউজকে বলেন, জনগণ আমাদের ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন। তাদের সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে কাজ করাই আমাদের দায়িত্ব। কিন্তু উপজেলা প্রশাসন, খাদ্যবিভাগ ও কৃষিবিভাগ আমাদের সঙ্গে সমন্বয় না করেই কৃষকের তালিকা করেছেন। তারা তালিকা তৈরিতে অনিয়মও করেছেন। এ নিয়ে উপজেলার সব জনপ্রতিনিধিরা ক্ষুব্ধ।
 
এ বিষয়ে মোবাইল ফোনে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা এনামুল হক ও খাদ্য কর্মকর্তা খবির উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, করোনা পরিস্থিতি ও সময় স্বল্পতার কারণে গত বছরের তালিকার আলোকেই এবার তালিকা হয়েছে। তালিকা প্রণয়নের সময় ইউনিয়ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে সমন্বয় করা হয়েছে। তালিকায় কোনো অনিয়ম হয়নি বলেও দাবি করেছেন তারা।
 
বাংলাদেশ সময়: ১১২৮ ঘণ্টা, মে ০৫, ২০২১
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa