ঢাকা, শনিবার, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৫ মে ২০২১, ০২ শাওয়াল ১৪৪২

জাতীয়

১৩২ ফুট ছাগলাপাগলাদহ গার্ডার ব্রিজের সংস্কারকাজ শুরু 

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০১৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৪, ২০২১
১৩২ ফুট ছাগলাপাগলাদহ গার্ডার ব্রিজের সংস্কারকাজ শুরু  গার্ডার ব্রিজের সংস্কারকাজ চলছে। ছবি: বাংলানিউজ

পাবনা (ঈশ্বরদী): সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার রায়দৌলতপুর ইউনিয়নের রসুলগ্রামের ছাগলাপাগলাদহ ১৩২ ফুট লম্বা রেল গার্ডার ব্রিজের সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে।  

ব্রিটিশ আমলের নির্মিত একশো বছরের বেশি পুরাতন এই ব্রিজটি।

ইটের মধ্যে চুন-সুড়কির পিলারে ফাটল দেখা দেওয়ায় আংশিক সংস্কার কাজ শুরু করেছে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের প্রকৌশলীরা।

সিসিক্লিপ দিয়ে অস্থায়ী রেললাইন তৈরি করে পুনরায় সংস্কার করা হচ্ছে তিনটি পুরোনা গার্ডার। যেনো টেম্পোরারি ম্যানেজমেন্ট অর্থাৎ অস্থায়ী ব্যবস্থাপনায় ট্রেন চলাচল করতে পারে।  

বুধবার (১৪ এপ্রিল) শত বছরের বেডব্লকের গাঁথুনি ভেঙে নতুন আঙ্গিকে আরসিসি বেডব্লক তৈরি করে 'জ্যাকেটিং ঢালাই' অর্থাৎ তিনটি পুরো পিলার ঢেকে দিয়ে ঢালাই কাজ শুরু হয়েছে।  

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার রায়দৌলতপুর ইউনিয়নের রসুলগ্রামের ছাগলাপাগলাদহ রেলসেতুর সংস্কার কাজের উদ্বোধন করা হয়। পরে সিসিক্লিপ দিয়ে বিকল্প রেললাইন আট ঘণ্টায় ট্রেন যাওয়ার মত উপযোগী করে বিভিন্ন রুটের মালবাহী ওয়াগন পারাপার করা হয়।  

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় প্রকৌশলী-২ আব্দুর রহিমের নেতৃত্বে সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী শিপন আলী, সহকারী সেতু প্রকৌশলী জুয়েল মিয়া, ঊর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পথ ও কার্য) আহসানূর রহমান, (ব্রিজ) হাসান আলী, ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান আরটিসির প্রকৌশলী আলমগীর কবিরসহ ১৪০ জন কর্মচারী নিয়ে কাজ শুরু হয়।  

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) সকালে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, সিরাজগঞ্জের জামতৈল-সলপ রেলওয়ে স্টেশনের মাঝামাঝি হুরসাগরের শাখা নদী ছাগলাপাগলানদ। এই নালায় সারাবছরই ৪৫ ফুট গভীরতা পানিতে টইটুম্বুর থাকে। এক সময় এই নালায় পাশের সাত আট গ্রাম থেকে স্রোতের গর্জন শোনা যেতো। চৈত্রের তাপদাহ রোদ্রে ও শিলাবৃষ্টি উপেক্ষা করে রেলওয়ে ও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের ১৪০ জন শ্রমিক অস্থায়ী জয়েন্ট সরিয়ে গার্ডার পুনঃস্থাপন করে অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। পরে দুপুরের পর বৈরী আবহাওয়া ও ঝড় শিলাবৃষ্টির কারণে কাজ কয়েক ঘণ্টা দেরি হয়।  

রেলওয়ের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান আরটিসির প্রকৌশলী আলমগীর কবির বাংলানিউজকে জানান, ব্রিটিশ আমলের তৈরি পিলারগুলোর ফাটল ধরা অংশে সংস্কার কাজ চলছে। প্রথম দিনে সিসিক্লিপ দিয়ে অস্থায়ী রেললাইন তৈরি করা হলো। সেতুর মাটির ১০ ফুট নীচ থেকে জ্যাকেটিং আরসিসি ঢালাই অর্থাৎ পুরো পিলারগুলোকে ঢেকে দেওয়ার কাজটি করতে এক মাসেরও বেশি সময় লাগবে। সম্পূর্ণরূপে কাজটি শেষ হতে দুই মাস সময় লাগবে।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় প্রকৌশলী-২ আব্দুর রহিম বাংলানিউজকে জানান, পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের ঈশ্বরদী-ঢাকা রুটে বেশকিছু সেতু ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। ২৫ টন এক্সেল লোড নেওয়ার মতো অবস্থায় নেই এসব সেতু। এসব রুটে স্বাভাবিকের চেয়ে কম গতিতে ট্রেন পরিচালনা করতে হয়। আর কানেক্টিভিটির ক্ষেত্রে পণ্যবাহী ট্রেন পরিচালনায়ও এসব সেতু উপযুক্ত নয়।  

ব্রিটিশ আমলের রেলসেতুগুলো ইটের মাঝে চুন-সুড়কি দিয়ে গাঁথুনি কম ছিল। গত একশো বছরেরও বেশি সময় এই রুটে ট্রেন চলাচল করার জন্য পিলারগুলোতে ফাটল দেখা গিয়েছিল। আর কিছুদিন পরে এই লাইনে ধীরগতিতে ট্রেন চালাতে হতো।  

ডিএন২ আব্দুর রহিম আরও বলেন, ঈশ্বরদী-ঢাকা রুটে ৪৯টি গার্ডার রেলব্রিজ রয়েছে। রেলবান্ধব সরকারের প্রধানমন্ত্রী, শেখ হাসিনার নির্দেশে রেলপথ মন্ত্রণালয় ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজগুলো দ্রুত সংস্কারের নির্দেশ দিয়েছেন। এই ব্রিজটির সংস্কার কাজে এক কোটি  টাকার বেশি ব্যয়ে নির্মিত হতে যাচ্ছে।  

ঈশ্বরদী-জয়দেবপুর পর্যন্ত ডাবল লাইন, যমুনা নদীর ওপর আরেকটি সেতুর নির্মাণকাজ শেষ হলে খুব কম সময়ে কম ভোগান্তিতে ট্রেন অল্প সময়ে গন্তব্যে পৌঁছাবে। বর্তমান রেলবান্ধব সরকারের আমলে তাই সেতুগুলো পুনর্নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

জানা যায়, ব্রিটিশ আমলে ১৯১০ সালে পাকশী হার্ডিঞ্জ ব্রিজ নির্মাণের পর ১৯১৬ সালে ঈশ্বরদী-সিরাজগঞ্জ রেলরুটে ট্রেন চলাচল শুরু হয়। ১৯৯৮ সালে আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসার পর উত্তর-দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের কথা চিন্তা করে যমুনা সেতুর ওপর দিয়ে ট্রেন চালু শুরু হয়। প্রতিদিনই ব্রডগেজ-মিটারগেজের ২২ জোড়া ট্রেন যাতায়াত করে। করোনার সময়ে বর্তমানে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকলেও পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল করছে। আর ঝুঁকিপূর্ণ সেতুগুলোর কারণে স্বল্প গতি ও ঝুঁকি নিয়ে ট্রেন পারাপার হতো। এতে সময় অপচয় হতো আবার শিডিউল বিপর্যয় ঘটতো। তারই ধারাবাহিতায় পুরোনো রেলসেতুগুলো সংস্কার করার দায়িত্ব পালন করছে সরকার।  

বাংলাদেশ সময়: ১০০৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৪, ২০২১
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa