ঢাকা, সোমবার, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৭ মে ২০২১, ০৪ শাওয়াল ১৪৪২

জাতীয়

তারা দুর্ধর্ষ নিশাচর ডাকাত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১২, ২০২১
তারা দুর্ধর্ষ নিশাচর ডাকাত

ঢাকা: সাইফুল ইসলাম ওরফে তাজু (৪২) নিজের একটি পিকআপভ্যানে করে রাতে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বেড়াতেন। সঙ্গে আরো থাকতেন দু’জন।

সুযোগ বুঝে তারা রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় টার্গেট করা মার্কেট ও দোকানের তালা ভেঙে চুরি-ডাকাতি করতেন। মালামাল ও টাকা-পয়সা লুটে ওই পিকআপ চালিয়ে পালিয়ে যেতেন এই লুটেরা চক্রের সদস্যরা।

এসব চুরি ও ডাকাতি কাজের লিডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করতেন সাইফুল ইসলাম ওরফে তাজু (৪২)। তিনি বিশেষ যন্ত্র দিয়ে দোকানের তালা কাটতেন। তার দুই সহযোগীর মধ্যে মনির পিকআপ চালাতেন এবং মিন্টু দোকানের ভেতরে ঢুকে মূল্যবান জিনিস ও টাকা-পয়সা বের করতেন।

সম্প্রতি করোনা মহামামির মধ্যে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার ফার্মেসিসহ বিভিন্ন দোকানে একাধিক চুরির ঘটনা তদন্ত করে চক্রের মূলহোতাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

সোমবার (১২ এপ্রিল) সকালে চোর ও ডাকাতচক্রের দুর্ধর্ষ তিন আসামিকে গ্রেফতারে বিষয়টি বাংলানিউজকে নিশ্চিত করেছেন সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার (ঢাকা মেট্রো-পূর্ব) কানিজ ফাতেমা।

তিনি বলেন, চক্রের সদস্যরা রাতে খালি পিকআপ ভ্যান নিয়ে ঘুরতেন। নির্জন মার্কেট ও দোকান বা ওষুধের ফার্মেসি টার্গেট করতেন তারা। এরপর সুবিধাজনক জায়গায় অবস্থান করে টার্গেট করা দোকানের তালা বিশেষ যন্ত্র দিয়ে ভেঙে ফেলতেন। ভেতরে ঢুকে দোকানে থাকা নগদ টাকা ও বিভিন্ন মূল্যবান পণ্য চুরি করে পিকআপে নিয়ে যেতেন পালিয়ে। এরপর চক্রের অন্য সহযোগীদের মাধ্যমে চুরি ও ডাকাতি করা এসব পণ্য বিভিন্ন জায়গায় বিক্রি করে দিতেন গ্রেফতার আসামিরা।

সিআইডির এই কর্মকর্তা বলেন, রাজধানীর শাহাজানপুর থানার একটি মামলা তদন্ত করতে গিয়ে দেখা যায়, ২০২০ সালের ৭ ডিসেম্বর রাত ১টা থেকে ভোর ৫টার মধ্যে যেকোনো সময় রাজধানীর শান্তিবাগ হোল্ডিংয়ের জারিয়া ফার্মেসি নামে একটি ওষুধের দোকানে তালা ভেঙে চুরি করে চক্রটি। তারা দোকানে ঢুকে ওষুধ বিক্রির নগদ ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকাসহ দোকানে থাকা ১৬ লাখ টাকা মূল্যের বিভিন্ন কোম্পানির ওষুধ চুরি করে।

ওই ঘটনার বর্ণনা দিয়ে সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার কানিজ ফাতেমা বলেন, গ্রেফতার মনির পিকআপ ভ্যানটি চালিয়ে দোকানের সামনে দাঁড় করিয়ে রেখেছিলেন। চক্রের মূলহোতা মো. সাইফুল ইসলাম ওরফে তাজু বিশেষ যন্ত্র দিয়ে দোকানের তালা ভেঙে ফেলেন। এরপর মিন্টু দোকানের ভেতর প্রবেশ করেন। এসময় সাইফুল ও মনির দোকানের বাইরে থেকে শাটার নামিয়ে পিকআপ নিয়ে দোকান থেকে একটু দূরে নিরাপদ জায়গায় গিয়ে অপেক্ষা করতে থাকেন।  

অনেকক্ষণ পর দোকানের ভেতর থেকে মিন্টু তাদের ফোন দেন। সাইফুল ও মনির পিকআপ নিয়ে দোকানের সামনে আসেন। দু’জন দোকানের শাটার তুলে ধরেন। এদিকে তারা দোকানের ভেতর থেকে মালামাল ভর্তি বস্তা বের করে পিকআপে তুলে তা পলিথিন দিয়ে ঢেকে দেন। এরপর তিনজনই ওই পিকআপটি নিয়ে পালান।

তিনি বলেন, ওই ঘটনার তদন্তে চক্রের সদস্য পিকআপ মালিক ও চক্রের মূলহোতা সাইফুল ইসলাম ওরফে তাজু, মো. মনির ও মো. মিন্টুকে শনিবার (১২ এপ্রিল) গভীর রাত ২টার দিকে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ, ডেমরা ও ফতুল্লা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ৮ লাখ টাকা মূল্যের একটি পিকআপ ভ্যান উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতার আসামিদের বিরুদ্ধে শাহজাহানপুর থানাসহ ডিএমপির বিভিন্ন থানায় মামলা রয়েছে বলেও জানা যায়।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ১২, ২০২১
এসজেএ/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa