ঢাকা, শনিবার, ২ মাঘ ১৪২৭, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

সারাদেশে সড়কে প্রাণ গেলো ২২ জনের

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৪, ২০২০
সারাদেশে সড়কে প্রাণ গেলো ২২ জনের

ঢাকা: সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ২২ জন নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে রয়েছেন টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলা ছয় জন, মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলায় সাতজন, রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে একজন, নরসিংদীর শিবপুর উপজেলায় একজন, ভোলার সদর উপজেলায় একজন, নাটোরের সদর উপজেলায় একজন, বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় একজন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা একজন, মাগুরা রামনগরে দু’জন ও মাগুরার রাজাপুরে একজন।


শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এসব দুর্ঘটনা ঘটে।

বাংলানিউজের স্টাফ ও ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্টদের পাঠানো খবর:

টাঙ্গাইল: সকালে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার ইচাইল এলাকায় বাসের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন ছয়জন।

মির্জাপুরের গোড়াই হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফফর হোসেন বাংলানিউজকে জানান, উপজেলার ইচাইল এলাকায় বাসের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়েছেন। নিহত ছয়জনের মধ্যে রয়েছেন ট্রাকের হেলপার রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার শমসের হাট গ্রামের মো. রতন মিয়ার মিয়ার ছেলে মো. চুন্নু (৩২), একই উপজেলার ধলনাকান্দি গ্রামের জয়নাল হোসেনের ছেলে মো. আশরাফুল ইসলাম (৩৪), একই গ্রামের পারভেজ আলীর ছেলে সিরাজুল ইসলামের (৬১) নাম জানা গেছে। বাকি তিন জনের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।
 
তিনি জানান, এ দুর্ঘটনায় আহতদের মধ্যে বাসের যাত্রী পিরোজপুর উপজেলার জাহাঙ্গীরবাগ গ্রামের রওশন আলীর স্ত্রী রেশমী বেগম (২০), একই উপজেলার কদরপাড়া গ্রামের রিপন মিয়ার স্ত্রী চন্দ্রনা, আশবাড়ী গ্রামের মো. পলাশ মিয়ার ছেলে মো. পারভেজ (১২), একই উপজেলার হরিরাম শাহাপুর গ্রামের এমদাদুলের ছেলে মো. রাশেদুল ইসলাম (২৭) ও রাজশাহীর বোয়ালী উপজেলার মতিয়া বিল গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে মো. হৃদয় মিয়ার (২২) নাম জানা গেছে। এদের মধ্যে তিনজনের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক।

টাঙ্গাইল ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের সহকারী পরিচালক মো. রেজাউল করিম বাংলানিউজকে জানান, রংপুর থেকে ছেড়ে আসা সেবা ক্লাসিক পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাস ইচাইল এলাকায় এসে বিকল হয়ে পড়ে। পরে মেরামতের জন্য বাসটি সড়কের পাশে দাঁড় করানো হয়। সকাল ৭টার দিকে ঢাকাগামী সবজি বোঝায় একটি ট্রাক বাসটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই চারজন নিহত হন। এ সময় আহত হন অন্তত ১২ জন। আহতদের উদ্ধার করে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে আরও দু’জনের মৃত্যু হয়।

মানিকগঞ্জ: দুপুরে মানিকগঞ্জের দৌলতপুরের মুলকান্দিতে বাস ও সিএনজি অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন সাতজন।

দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম বাংলানিউজকে জানান, মানিকগঞ্জের দৌলতপুরের মুলাকান্দিতে বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে একই পরিবারের ছয়জনসহ নিহত সাত জন নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে একজন অটোরিকশার চালক বলে জানা গেছে।

ঢাকা: সকালে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর মানিকদিয়া এলাকায় ট্রাকের ধাক্কায় ইফতিখার ইফতি (১৮) নামে এক কলেজছাত্র নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অনন্ত বড়ুয়া (১৮) নামে আরেক শিক্ষার্থী।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের পুলিশ ক্যম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া বাংলানিউজকে জানান, ময়নাতদন্তের জন্য ইফতির মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে। আহত অনন্তের দুই পা ও হাতে আঘাত লেগেছে। তাকে জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

নাটোর: সকালে নাটোরের সদর উপজেলার হয়বতপুর এলাকায় নাটোর-বনপাড়া মহাসড়কে রাস্তা পার হওয়ার সময় বাসের ধাক্কায় মো. আলাল ফকির (৬৫) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন।

হাইওয়ে পুলিশের ঝলমলিয়া ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. রেজওয়ানুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, ফজরের নামাজ শেষে সকাল সাড়ে ৬টার দিকে বাড়ি ফিরছিলেন আলাল ফকির। পথে হয়বতপুর এলাকায় মহাসড়ক পার হওয়ার সময় একটি বাস তাকে ধাক্কা দেয়। এতে গুরুতর আহত হন তিনি। খবর পেয়ে হাইওয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নরসিংদী: দুপুরে নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার জামতলা এলাকায় পিকআপভ্যান ও শ্যালো ইঞ্জিনচালিত নসিমন ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার ত্রিমুখী সংঘর্ষে ইউসুফ আলী (৬০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।
শিবপুর থানার উপ-পরিদর্শক মুরাদ হোসেন বাংলানিউজকে জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহত ইউসুফ আলীর মরদেহ উদ্ধার করে ইটাখলা হাইওয়ে ফাঁড়িতে পাঠানো হয়েছে। আর দুর্ঘটনা কবলিত অটোরিকশা, নসিমন ও পিকআপভ্যান জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ভোলা: দুপুরে ভোলায় ভোলা-চরফ্যাশন সড়কের বাংলাবাজার পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের সামনে ট্রলির ধাক্কায় নিজাম উদ্দিন মিরন (৪৫) নামে এক মোটরসাইকেলআরোহী নিহত হয়েছেন।

ভোলার বাংলাবাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা বাংলানিউজকে জানান, দুপুরে মিরনসহ তিনজন মোটরসাইকেলে করে ভোলা শহরে যাচ্ছিলেন। ভোলা-চরফ্যাশন সড়কের বাংলাবাজার পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের সামনে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা মালামাল বোঝাই একটি ট্রলি তাদের ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই মিরন মারা যান। এ সময় আহত হন তার সঙ্গে থাকা অপর দুই আরোহী।

তিনি জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে দুর্ঘটনা কবলিত ট্রলি জব্দ করা হলেও চালক পালিয়েছেন।

বগুড়া: বিকেলে বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় ধান বোঝাই অটো ভ্যানের চাপায় জাহিদ হাসান (৪) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। জাহিদ হাসান নন্দীগ্রাম উপজেলায় ভাটরা ইউনিয়নের বেলঘড়িয়া গ্রামের ফারুক আহম্মেদের ছেলে।

নন্দীগ্রামের কুমিড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক আজিজুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ভ্যানটি জব্দ করা হয়েছে।

মাগুরা: মাগুরা ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের রামনগর ঠাকুর বাড়ি এলাকায় সবজি বোঝাই ট্রাক উল্টে একই পরিবারে দুইজন নিহত হয়েছেন।  নিহত দু’জন হলেন-স্বর্ণা চক্রবর্তী (২৫) ও তার বড় ভায়ের স্ত্রী সাথী (৩০)।  

মাগুরা রামনগর হাইওয়ে পুলিশ পরিদশক মো. শাহজালাল বাবুল বাংলানিউজ বলেন, বিকেলে রামনগর ঠাকুর বাড়ি এলাকায় সবজি বোঝাই একটি মিনি ট্রাক উল্টে একই পরিবারের দুইজন নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনা কবলিত ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় সদর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে মাগুরার রাজাপুর এলাকায় মোটরসাইকেল ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে আহাদ আলী মোল্ল্যা (৬০) নামে এক পল্লী চিকিৎসক নিহত হয়েছেন। আহাদ আলী  নড়াইলের কালিনগর এলাকার আবু হোসেন মোল্ল্যার ছেলে।

মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জয়নাল আবেদিন বাংলানিউজকে বলেন, বিকেলে রোগী দেখে বাড়ি ফেরার পথে মোটরসাইকেল ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার সংঘর্ষে গুরুতর আহত হন পল্লী চিকিৎসক আহাদ আলী। পরে তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায়  মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: সন্ধ্যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ইসলামাবাদ এলাকায় বাসচাপায় বাহা মিয়া (৭০) নামে এক পথচারী নিহত হয়েছেন।

সরাইল খাটাহাতা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুবুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, সন্ধ্যায় টি আর পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস সিলেট থেকে ঢাকার দিকে যাচ্ছিলো। এ সময় বাহা মিয়া ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ইসলামাবাদ এলাকার রাস্তা পারাপার হওয়ার সময় দ্রুতগামী বাসটি তাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে বাসটি জব্দ করা হয়েছে। তিনি জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৪, ২০২০
আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa