ঢাকা, সোমবার, ৫ মাঘ ১৪২৭, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

নতুন স্ত্রীকে জমি ও ঘর দিলেন বৃদ্ধ মহির উদ্দিন

গোলাম রব্বানী নাদিম, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩, ২০২০
নতুন স্ত্রীকে জমি ও ঘর দিলেন বৃদ্ধ মহির উদ্দিন মহির উদ্দিন ও তার স্ত্রী, পাশে মেয়েটির জন্ম সনদ

জামালপুর: জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে নাতি ধর্ষণ করায় ৮৫ বছরের বৃদ্ধ মহির উদ্দিনের সঙ্গে বিয়ে দেওয়া হয়েছে ভুক্তভোগী মেয়েটিকে। বিয়ের পর নববধূর নিরাপত্তার কথা ভেবে তাকে ১৬ শতাংশ জমি ও নতুন ঘর নির্মাণ করে দিয়েছেন বৃদ্ধ মহির উদ্দিন।

আলোচিত সেই ঘটনাটি পারিবারিকভাবে মেনেও নিয়েছে উভয় পরিবার।

এদিকে, মেয়েটির বয়স নিয়েও ধোঁয়াশা দূর হয়েছে। প্রথমে স্থানীয় এক মাদ্রাসার পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীর ভর্তি ফর্ম অনুযায়ী মেয়েটির বয়স ১১ বছর উল্লেখ করা হলেও পরে জন্মসনদে তার বয়স ১৮ বছর দেখা যায়।  

গত ১৯ নভেম্বর ‘৮৫ বছরের বৃদ্ধের সঙ্গে ১১ বছরের কিশোরীর বিয়ে’ শিরোনামে প্রতিবেদনে বলা হয়, দেওয়ানগঞ্জের চরআমখাওয়া ইউনিয়নের বয়রাপাড়া গ্রামে ৮৫ বছরের বৃদ্ধ মহির উদ্দিনের সঙ্গে ১১ বছরের এক শিশুর বিয়ে দিয়েছেন গ্রাম্য মাতব্বররা। এ ঘটনায় সারা দেশে হইচই পড়ে যায়।

বিষয়টি উচ্চ আদালতে দৃষ্টিগোচর হলে ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। নির্দেশনা অনুযায়ী ২৬ নভেম্বরের মধ্যে এ বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করতে বলা হয়। জামালপুরের ডিসি, এসপি ও দেওয়ানগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) আদালত এ আদেশ দেন।

হাইকোর্ট স্বপ্রণোদিত হয়ে বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি শাহেদ নূর উদ্দীনের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এরই মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে জামালপুর জেলা প্রশাসন।

জামালপুর জেলা প্রশাসক (ডিসি) এনামুল হক প্রতিবেদন দাখিলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার চর আমখাওয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) বয়ড়াপাড়া গ্রামের একটি মহিলা মাদ্রাসার পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীর সঙ্গে একই এলাকার সুরমান আলীর বখাটে ছেলে শাহিনের শারীরিক সম্পর্ক হয়। একপর্যায়ে ওই মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। পরে কবিরাজি চিকিৎসায় মেয়েটির গর্ভপাত ঘটানো হয়। বিষয়টি ফাঁস হয়ে যাওয়ায় স্থানীয় ইউপি সদস্য ও স্থানীয় মাতব্বররা এ বিষয়ে সালিশ বৈঠক করেন। সালিশে ধর্ষক শাহিনকে ১০টি দোররা মেরে তার কর্মকাণ্ডের দায় চাপিয়ে দেওয়া হয় শাহিনের ৮৫ বছরের বৃদ্ধ দাদার ওপর। পরে দাদা মহির উদ্দিনের সঙ্গে ভুক্তভোগী ১১ বছরের কিশোরীর বিয়ে দেন স্থানীয় মাতব্বররা। এ বিষয়ে বৃদ্ধ মহির উদ্দিন সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে চাননি। তার আগে দুই স্ত্রী ছিলেন। অনেক আগেই তাদের মৃত্যু হয়েছে।

তবে তার নতুন স্ত্রী জানান, তিনি এবং উভয় পরিবারই স্বাভাবিকভবে বিষয়টি মেনে নিয়েছেন। এছাড়া তার সুখের জন্য তাকে ১৬ শতাংশ জমি ও আলাদা ঘর নির্মাণ করে দিয়েছেন মহির উদ্দিন। মেয়েটি নিজের জন্য সবার কাছে দোয়াও চেয়েছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩, ২০২০
এসআই


 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa