ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৭ রবিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

নলডাঙ্গায় ছিনতাইকারীর হামলায় সার ব্যবসায়ী নিহত

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৩৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২২, ২০২০
নলডাঙ্গায় ছিনতাইকারীর হামলায় সার ব্যবসায়ী নিহত হাসপাতালের বেডে অরুণ শর্মা। ছবি: বাংলানিউজ

নাটোর: নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলায় ছিনতাইকারীদের হামলায় অরুণ শর্মা ওরফে লোকান ঠাকুর (৬৫) নামে এক সার ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার (২১ নভেম্বর) দিনগত দেড়টার দিকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়।

এর আগে রাত ৯টার দিকে ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান থেকে বাড়ি ফেরার পথে অরুণ শর্মা ছিনতাইকারীর হামলায় গুরুতর আহত হন।  আটক তিনজন হলেন-একই এলাকার মৃত মনিরুল ইসলাম ওরফে আবু বক্করের ছেলে আব্দুর রশিদ (৩০), খবির শেখের ছেলে মো. রকি শেখ (২৪) ও রবিউল ইসলামের ছেলে মিজানুর রহমান ওরফে মো. নাহিদ হোসেন (৩০)।  

নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নজরুল ইসলাম মৃধা বাংলানিউজকে জানান, অরুণ শর্মা একজন সার ব্যবসায়ী। তার নিজস্ব লাইসেন্স ছিল না। মেসার্স ফাতেমা ট্রডার্স নামে একটি প্রতিষ্ঠানের নামে লাইসেন্স দিয়ে নলডাঙ্গা বাজারে সার ব্যবসা করতেন। শনিবার রাত ৯টার দিকে অরুণ শর্মা তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে সোনাপাতিল গ্রামে তার নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। পথে নলডাঙ্গা ব্রিজ এলাকা পার হয়ে সোনাপাতিল গ্রামের তালতলা এলাকায় পৌঁছালে পেছন থেকে লোহার রড দিয়ে আঘাত করে ছিনতাইকারীরা। এ সময় অরুণ শর্মা গুরুতর জখম হয়ে রাস্তায় পড়ে গেলে তার কাছে থাকা প্রায় তিন লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায় ছিনতাইকারীরা। পরে অরুণ শর্মার চিৎকারে আশ-পাশের লোকজন এসে গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য প্রথমে স্থানীয় বেসরকারি বিসমিল্লাহ হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। সেখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে রাতেই অরুণ শর্মাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল স্থানান্তর করা হয়। পরে রামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত দেড়টার দিকে অরুণ শর্মার মৃত্যু হয়।

ওসি আরও জানান, এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পাশাপাশি ছিনতাইকারীদের ধরতে অভিযানে নেমেছে পুলিশ। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখনও কেউ কোনো লিখিত অভিযোগ দেয়নি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

নিহতের স্ত্রী শ্যামলী শর্মা বাংলানিউজকে জানান, মৃত্যুর আগে তার স্বামী তাকে জানিয়েছিলেন, দোকান থেকে তিন লাখ টাকার তিনটি বান্ডিলসহ দোকানের কেনা-বেচার টাকাসহ প্রায় ৫ লাখ টাকা নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। বাড়ি থেকে অদূরে রাস্তায় ওৎপেতে থাকা ৩/৪ জন যুবক হঠাৎ পেছন থেকে লোহার পাইপ দিয়ে মাথায় আঘাত করে টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার চান।

এদিকে স্থানীয়রা জানান, পুলিশের হাতে আটক রশিদ, রকি ও নাহিদসহ ৪/৫ জন যুবককে শনিবার সন্ধ্যার দিকে ঘটনাস্থলের আশপাশেই ঘোরাফেরা ও বসে আড্ডা দিতে দেখা গেছে। তারা এলাকায় নানা ধরনের অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে।

স্থানীয় মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী মাসুদা পারভীন মামুনি অভিযোগ করে বাংলানিউজকে জানান, পুলিশের হাতে আটক রশিদ, নাহিদ ও রকি গত ১৬ নভেম্বর (সোমবার) বিকেলে পূর্ব সোনাপাতিল এলাকায় তার নির্বাচনী প্রচারণায় বাজারসহ তার লোকজনের ওপর হামলা চালিয়েছিল। একইসঙ্গে প্রায় দুইশ প্যাকেট খাবার ছিনিয়ে যায় তারা।

নলডাঙ্গা বাজার ব্যবসায়ী মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আলমগীর হোসেন অপরাধীদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে বাংলানিউজকে বলেন, সার ব্যবসায়ী অরুণ শর্মার হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে বাজারের ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে রোববার দুপুর ১২টায় নলডাঙ্গা বাজারে মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১১২৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ২২, ২০২০
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa