ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

নবমী পূজার মধ্য দিয়ে বাজবে দেবী দুর্গার বিদায়ের সুর

হোসাইন মোহাম্মদ সাগর, ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৫, ২০২০
নবমী পূজার মধ্য দিয়ে বাজবে দেবী দুর্গার বিদায়ের সুর নবমী পূজার মধ্য দিয়ে বাজবে দেবী দুর্গার বিদায়ের সুর। ছবি: ডি এইচ বাদল

ঢাকা: ধূপের ঘ্রাণ, ঢাকের বাদ্য আর উলুধ্বনিতে মুখরিত মণ্ডপ। সন্ধ্যা হতে না হতেই ভিড় বাড়েছে দেবী দূর্গাকে ঘিরে।

আজ মহানবমী, সমস্ত দিন মণ্ডপে ঘুরে ঘুরে দেবীকে এদিন প্রাণ ভরে দেখছেন ভক্তরা। কারণ রাত পেরুলেই ভক্তদের কাঁদিয়ে কৈলাশে ফিরে যাবেন দেবী দুর্গা।

রোববার (২৫ অক্টোবর) নবমী পূজার মধ্য দিয়ে বাজছে দেবী দুর্গার বিদায়ের সুর। সকালে বিহিত পূজার মাধ্যমে শুরু হয় মহানবমীর আনুষ্ঠানিকতা। এ দিনই দুর্গাপূজার অন্তিম দিন হিসেবে বিবেচনা করা হয়। কারণ পরের দিন কেবল বিসর্জনের পর্ব।

এদিন ষোড়শ উপাচারের সঙ্গে ১০৮টি নীলপদ্মে পূজিত হয়েছেন দেবিদূর্গা। পূজা শেষে যথারীতি ছিল পুষ্পাঞ্জলি ও প্রসাদ বিতরণ। সন্ধ্যায় ছিল ভোগ আরতি।

এবার দেবী এসেছিলেন দোলায় চড়ে এবং ফিরবেন গজে চড়ে। প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে সোমবার (২৬ অক্টোবর) শেষ হবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপূজা।

এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় পূজা মণ্ডপ রাজধানীর ঢাকেশ্বরী পূজা মন্দিরের পুরোহিত রঞ্জিত চক্রবর্তী বাংলানিউজকে বলেন, আমরা যেন একটি সুন্দর প্রভাতে আবার সবাই একত্রিত হতে পারি, আমরা মায়ের কাছে সেই প্রার্থনাই করেছি। বিভীষিকাময় করোনার হাত থেকে রক্ষা এবং আমরা যেন আবার সুখে শান্তিতে বসবাস করতে পারি, প্রার্থনায় জানিয়েছি সেটিও।

তিনি বলেন, যেহেতু এবার মা দোলে চড়ে এসেছেন ফল কিঞ্চিত পরিমাণে অশুভের আশংকা ছিল। তবে আমরা মায়ের চরণে বহু ধরনের ভেষজ দ্রব্য অর্পণ করে মায়ের কাছে প্রার্থনা করেছি, যুগে যুগে যেভাবে অশুভ শক্তির বিনাশ করেছ, এবারও সেভাবে অশুভ শক্তির বিনাশ করে সবাইকে সুখে-শান্তিতে বসবাস করার সুযোগ দিও। আর যেহেতু মা এবার গজে চড়ে যাবেন, সেহেতু দোলায় এসে যেমন একটু দুঃখ দিয়েছে, তেমনি যাবার সময় সবকিছু সুজলা সুফলা ভাবে ভরিয়া দিয়ে যাবে।

নবমীর রাতে উৎসবের রাত শেষ হয়। নবমী রাতে তাই মণ্ডপে মণ্ডপে বিদায়ের ঘণ্টা বাজে। করোনা মহামারির কারণে সংক্রমণ এড়াতে এ বছর বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠান সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে। উৎসব সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো পরিহার করে সাত্ত্বিক পূজায় সীমাবদ্ধ রাখতে এবারের দুর্গোৎসবকে ‘দুর্গাপূজা’ হিসেবে অভিহিত করেছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ। তবে করোনা পরিস্থিতি কাটিয়ে আগামী বছর আবার নতুন উৎসবে যোগ দেবে মায়ের ভক্তরা, এমনটাই প্রত্যাশা সবার।

বাংলাদেশ সময়: ২০০০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৫, ২০২০
এইচএমএস/এমআরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa