ঢাকা, শনিবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

পটুয়াখালীতে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি সভা 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭৫০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৩, ২০২০
পটুয়াখালীতে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি সভা 

পটুয়াখালী: উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত নিম্নচাপের প্রভাবের ঝুঁকি মোকাবিলায় স্থায়ী দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা নির্দেশাবলী (এসওডি) অনুযায়ী সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করতে জরুরি সভা সম্পন্ন করেছে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) রাত আটটায় জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক মো. মতিউল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ সময় পৌর মেয়র মহিউদ্দিন আহমেদ, সিভিল সার্জনের প্রতিনিধি ডা. রেজাউর রহমান, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এড গোলাম সরোয়ার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জি এম সরফরাজ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) শেখ বিল্লাল হোসেন, প্রেসক্লাবের সভাপতি কাজী শামসুর রহমান ইকবালসহ সভায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সকল সদস্যবৃন্দসহ, সরকারি-বেসরকারি সব বিভাগের প্রধানগণ, যুব ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্য এবং সংবাদমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসক মো. মতিউল ইসলাম চৌধুরী বলেন, সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোকে সতর্কতামূলক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সব স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসাগুলো আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত করার নির্দেশনা এবং পাশাপাশি করোনার সতর্কতায় স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য প্রতি সাইক্লোন শেল্টারের অনুকূলে বর্তমানে দু’টি করা হবে।

সভায় জানানো হয়েছে, ৫ টি উপজেলায় সিপিপির ৬ হাজারের অধিক, ফায়ার সার্ভিসের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কমিউনিটি ভলান্টিয়ার ৫০ জন, রেডক্রিসেন্টের যুব সদস্য ৭২ জন ও স্বেচ্ছাসেবীযুব সংগঠন পটুয়াখালী ইয়ুথ ফোরামসহ অন্যান্য সংগঠনের প্রায় ৩০০ জন ভলান্টিয়ার প্রস্তুত রয়েছে।

এছাড়াও জেলা প্রশাসনের কনট্রোলরুম ০৪৪১৬৫০১০ ও জেলা পুলিশের ০১৩২০১৫৬০৯৯ এ নম্বরে সকল তথ্য জানানোর অনুরোধ করা হয়েছে। এছাড়াও জাতীয় তথ্য সেবা ৩৩৩ ও জরুরি সেবা ৯৯৯ এ কল দিয়ে আবহাওয়া, জরুরি সহযোগিতা নেওয়ার জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে।

জেলা প্রশাসক জানান, জেলায় ২৮৫ মেট্রিকটন চাল ও ৩ লাখ টাকা মজুদ রয়েছে। এছাড়া ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করা হচ্ছে। বন বিভাগ, প্রাণী সম্পদ বিভাগ, মৎস্য বিভাগ ও বিদ্যুৎ বিভাগকে জরুরি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এদিকে সাগরে মাছ শিকারে নিষেধাজ্ঞা থাকায় ইতিপূর্বে বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার ট্রলার ও নৌকাসমূহকে উপকূলের কাছাকাছি নিয়ে আসা হয়েছে।

এছাড়াও জেলার রাঙ্গাবালী উপজেলায় বিকেলে স্পীড বোট ডুবিতে নিখোঁজ ব্যক্তিদের উদ্ধারের জন্য পুলিশ ও পোস্ট গার্ড সহ সংশ্লিষ্ট সকলের অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৭৫০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৩, ২০২০
জেআইএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa