ঢাকা, শনিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

ভিসা ও ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করেছে ভারত

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৭ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০২০
ভিসা ও ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করেছে ভারত প্রতীকী

ঢাকা: ভারত থেকে বিভিন্ন দেশে যেতে ও বিভিন্ন দেশ থেকে সে দেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে বেশ কয়েকটি ক্যাটাগরিতে ভিসা শিথিল করেছে দেশটি। একই সাথে ভ্রমণের নিষেধাজ্ঞাও শিথিল করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এ সিদ্ধান্ত ২২ অক্টোবর থেকেই কার্যকর হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনা ভাইরাসের প্রেক্ষিতে গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে ভারতে প্রবেশে ও ভারত থেকে বাইরে যেতে কঠিন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল। তবে ভারত সরকার বিদেশি নাগরিকের প্রবেশে ও ভারতীয় নাগরিকদের দেশের বাইরে যাওয়ার ক্ষেত্রে এখন ভিসা ও ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা শিথিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সে অনুযায়ী ওসিআই ও পিআইও কার্ডধারী এবং সকল বিদেশি নাগরিকরা (ট্যুরিস্ট ভিসা ব্যতীত) বিমানবন্দর ও নৌবন্দরের ইমিগ্রেশন দিয়ে প্রবেশ করতে পারবেন। বন্দে ভারত মিশন, সিভিল এভিয়েশন মন্ত্রণালয়ের অনুমোদিত এয়ারবাবল চুক্তি বা নন কর্মাশিয়াল ফ্লাইটের মাধ্যমে যাতায়াত করতে পারবেন। তবে যাতায়াতের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মেনে চলতে হবে।

ভারত সরকার প্রচলিত সব ভিসা (ইলেকট্রনিক, ট্যুরিস্ট ও মেডিক্যাল ভিসা ব্যতীত) পুনরায় চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যদি প্রচলিত অন্যান্য ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যায় তবে ভারতের বিভিন্ন মিশন থেকে পুনরায় নতুন ভিসা নেওয়া যেতে পারবে।

বিদেশি নাগরিকরা মেডিক্যাল ভিসার জন্য তাদের অ্যাটেন্ডেন্টসসহ আবেদন করতে পারবেন। তবে এই সিদ্ধান্ত বিদেশি নাগরিকদের বিভিন্ন কাজে যেমন বাণিজ্য, কনফারেন্স, কর্মসংস্থান, শিক্ষা ও গবেষণা কাজের জন্য কার্যকর হবে না।

বিজ্ঞপ্তিতে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে উল্লেখ করা হয়, যাত্রীদের নির্ধারিত ভ্রমণের তারিখের কমপক্ষে ৭২ ঘণ্টা আগে অনলাইন পোর্টালে এয়ার সুবিধা (www.newdelhiairport.in) এ স্ব-প্রতিবেদন ফর্মে জানাতে হবে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আদেশ অনুসারে ভারতে ভ্রমণকারী সব যাত্রীদের বোর্ডিংয়ের আগে যে কোনও সময় স্ব-প্রতিবেদন ফর্মটি বাধ্যতামূলকভাবে পূরণ করতে হবে। এই পোর্টালে ভ্রমণকারীদের প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হতে হবে যে, ভ্রমণকারীদের বাধ্যতামূলকভাবে নিজস্ব ব্যয়ে ১৪ দিন প্রাতিষ্ঠানিকভাবে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এরমধ্যে ৭দিন নিজস্ব ব্যয়ে এবং বাকি ৭দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থেকে নিজের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে।  

কোনও যাত্রী যদি বোডিংয়ের আগে ভ্রমণ বাদ/ছাড় দিতে চায়, তবে অবশ্যই ওই যাত্রীকে ৭২ ঘণ্টা আগে অনলাইনের মাধ্যমে জানাতে হবে। এক্ষেত্রে অনলাইনে ভারত সরকারের নেওয়া সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত বলে গণ্য হবে। ভ্রমণ বাদ/ছাড়ের ক্যাটাগরিগুলো হলো- গর্ভবতী মহিলারা, পরিবারে কারও মৃত্যু হলে, গুরুতর অসুস্থতা, ১০ বছরের কম বয়সী শিশুদের সঙ্গে বাবা-মা, কোভিড-১৯ নেগেটিভ সনদ (আরটি পিসিআর পরীক্ষা)।

গন্তব্য থেকে ভারতের বিমানবন্দরে পৌঁছানোর ৯৬ ঘণ্টার মধ্যে টেস্ট করাতে হবে। টেস্টের সনদ যদি বিমানে ভ্রমণের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে না পাওয়া যায়, তবে ওই সনদটি ভারতের বিমানবন্দরে পৌঁছানোর সময় তা দেখানো যাবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০২০
টিআর/এমজেএফ/জেআইএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa