ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জাতীয়

ফেনীর পরশুরাম সীমান্ত থেকে দুই ভাইয়ের মরদেহ উদ্ধার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪২১ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৮, ২০২০
ফেনীর পরশুরাম সীমান্ত থেকে দুই ভাইয়ের মরদেহ উদ্ধার ফেনীর পরশুরাম সীমান্তে দুই ভাইয়ের মরদেহ উদ্ধার। ছবি: বাংলানিউজ

ফেনী: ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের শূন্যরেখায় (নো ম্যানস ল্যান্ড) খোলা আকাশের নিচে পড়ে থাকা দুই ভাই করিম (২৮) ও স্বপন (২৪) এর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

রবিবার (১৮ অক্টোবর) সাড়ে ১১টার দিকে বিজিবি-বিএসএফ পতাকা বৈঠক শেষে মরদেহগুলো উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে বিজিবি।

করিম ও স্বপন পরশুরামের পৌর এলাকার গুথুমা গ্রামের কালাধন সরকারের ছেলে।

তাদের বাবা বাংলানিউজকে জানান, ফজরের নামাজের কিছুক্ষণ আগে তারা মাছ ধরতে গিয়েছিলো।

স্থানীয় কাউন্সিলর রাসুল আহাম্মদ মজুমদার স্বপন বাংলানিউজকে জানান, ভোরের দিকে সীমান্তের ১৫-২০ ফুট ভেতরে মরদেহগুলো পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়।

স্থানীয়দের ধারণা, বজ্রপাতের শিকার হয়ে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

ছাগলনাইয়া-পরশুরাম সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) নিশান চাকমা বাংলানিউজকে জানান, তাদের মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি। তবে তাদের শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন নেই। বিজিবি-বিএসএফ পতাকা বৈঠক শেষে মরদেহগুলো পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

পরশুরাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত মাহমুদ বাংলানিউজকে জানান, ১টার দিকে মরদেহগুলো আমাদের কাছে হস্তান্তর করেছে বিজিবি। মরদেহগুলো থানায় আনা হচ্ছে। সেখান থেকে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে।

গুথুমা বিজিবি ক্যাম্পের হাবিলদার হাফিজ বাংলানিউজকে জানান, বিবিজি-বিএসএফ এর সাথে পতাকা বৈঠক শেষে মরদেহগুলো উদ্ধার করে পরশুরাম মডেল থানার পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

পরিবারের ১০ সন্তানের মধ্যে চতুর্থ ও পঞ্চম সন্তান ছিলেন করিম এবং স্বপন। তারা দুজনেই বিবাহিত। তাদের মধ্যে করিমের একটি ছেলে রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪২০ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৮, ২০২০
এসএইচডি/কেএআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa