ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৭, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জাতীয়

কিশোরগঞ্জে টানা বৃষ্টিতে ৬৭১ হাঁসের মৃত্যু

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২০৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০
কিশোরগঞ্জে টানা বৃষ্টিতে ৬৭১ হাঁসের মৃত্যু পানিতে হাঁসগুলো মারা গেছে, ছবি: বাংলানিউজ

নীলফামারী: টানা ছয়দিনের অতি বৃষ্টির কারণে খামারে পানি উঠে মারা গেছে ৬৭১টি হাঁস। নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার মাগুড়া ইউনিয়নের কুটিপাড়ার বাসিন্দা চার বন্ধুর হাঁসের খামারে এ ঘটনা ঘটেছে।

 

মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) ঘটনাস্থলে গেলে দেখা যায়, ইউনিয়ন পরিষদের পেছনে তাদের হাঁসের খামারটি। ওই গ্রামের চার বন্ধু কলেজছাত্র তাহেরুল ইসলাম, ফারুক হোসেন, কবির বাবু মিয়া ও গোলসান বলেন, করোনাকালে কলেজ বন্ধ থাকায় চার বন্ধু মিলে চার লাখ টাকা দিয়ে হাঁসের খামারটি গড়ে তুলেছিলেন। চলতি বছরের ১৮ জুলাই নওগাঁ সরকারি হাঁসের খামার থেকে একদিনের মোট দুই হাজার ৫৩টি হাঁস এনে লালন পালন করছি। কিন্তু গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টির পানিতে হাঁসের খামারটি তলিয়ে যেতে থাকে। টানা বৃষ্টিতে পানি ওঠায় বিগত ছয়দিনে মোট ৬৭১টি হাঁস মারা গেছে। এছাড়া ২০টি বস্তায় রাখা হাঁসের খাবারও ভেসে গেছে। তারা দ্রুত অন্য হাঁসগুলো বাচাঁনোর জন্য উচুঁ ঘরে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।  

তারা কান্না বিজরিত কণ্ঠে বলেন, হাঁসগুলো আমরা পরিচর্যা করে বড় করেছিলাম। এক একটি হাঁসের বর্তমান বাজার দর প্রায় তিনশ’ টাকা করে। এছাড়া হাঁসের ডিমের হালি ৪৫ টাকা করে। শুরুতে আমরা বড় ধরনের হোচট খেলাম। এখন বাকি হাঁসগুলোকে বাঁচিয়ে রেখে খামারটি চালু করতে আমাদের নতুন করে যুদ্ধে নামতে হবে।

মাগুড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাহমুদুল হোসেন শিহাব জানান, চার বন্ধু মিলে খামার করে স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন দেখছিলেন। কিন্তু টানা ছয়দিনের বৃষ্টিতে হাঁস মরে যাওয়ায় ছেলেগুলো বিপদে পড়লো। এ ইউনিয়নে প্রায় একশ’ পুকুরের মাছ সম্পূর্ণ ভেসে গেছে। অন্যদিকে ১৫০ একর জমির আমন ধান ও সবজি ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে।

কিশোরগঞ্জ উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. হোসেন মোহাম্মদ রাকিবুল রহমান বলেন, আমরা খোঁজ নিয়েছি। হাঁসের খামারে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য কোনো সহযোগিতার সুযোগ থাকলে, আমরা তাদের সহযোগিতা করব।

বাংলাদেশ সময়: ২২০৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০
এসআই
 
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa