ঢাকা, সোমবার, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জাতীয়

বেলকুচিতে ৮ বাল্যবিয়ে বন্ধ, লাখ টাকা জরিমানা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০
বেলকুচিতে ৮ বাল্যবিয়ে বন্ধ,  লাখ টাকা জরিমানা ছবি: বাংলানিউজ

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জে এক রাতে আট বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন বেলকুচি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আনিসুর রহমান। একই সঙ্গে বাল্যবিয়ের আয়োজন করায় বর-কনের অভিভাবকদের দেড় লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বাংলানিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন ইউএনও মো. আনিসুর রহমান।

এর আগে শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে থেকে দিনগত রাত পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব বিয়ে বন্ধ ও জরিমানা করেন তিনি।  

মো. আনিসুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার বিকেলে বেলকুচি পৌরসভা এলাকার চরচালা এলাকায় অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী (১৪), গাড়ামাসি এলাকায় সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী (১২), সন্ধ্যায় সুবর্ণসাড়া এলাকায় দশম শ্রেণির ছাত্রী (১৫), রাত ৮টার দিকে দৌলতপুর ইউনিয়নের পেস্তকপাড়া গ্রামে দশম শ্রেণির ছাত্রী (১৫), রাত ৯টার দিকে চন্দনগাঁতী এলাকার ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী (১৩), ১০টার দিকে একই এলাকার একাদশ শ্রেণির ছাত্রী (১৭) ও দিনগত রাতে ধুকুরিয়া বেড়া ইউনিয়নের কল্যাণপুর গ্রামে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী (১২) ও দৌলতপুর ইউনিয়নের পেস্তকপাড়া গ্রামের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীর (১২) বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয়।  

তিনি আরও জানান, আটটি বাল্যবিয়েতেই কনে ছিল অপ্রাপ্তবয়স্ক। এর মধ্যে দু’টি বাল্যবিয়ের বরও অপ্রাপ্তবয়স্ক ছিল। এসব বিয়ের আয়োজন করায় অভিভাবকদের কাছ থেকে বিভিন্ন পরিমাণে মোট ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয় এবং প্রত্যেক ক্ষেত্রে কনে প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবেন না বলে অভিভাবকদের কাছ থেকে মুচলেকা নেওয়া হয়।

বেলকুচিতে ইউএনও হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর মো. আনিসুর রহমান দ্বিতীয় বারের মতো এক রাতে সাতটিরও বেশি বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন। তিনি সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা সহকারী কমিশনারের (ভূমি) দায়িত্বে থাকা অবস্থায় দুইবার এক রাতে সাত বাল্যবিয়ে বন্ধ করেছিলেন। তিনি সিরাজগঞ্জ সদর ও চৌহালীতে একই পদে কর্মকালীন প্রায় দুই শতাধিক বাল্যবিয়ে বন্ধ করে রেকর্ড গড়েছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa