ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ কার্তিক ১৪২৭, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জাতীয়

বিপৎসীমার ২৮ সেন্টিমিটার নিচে তিস্তার পানি 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০
বিপৎসীমার ২৮ সেন্টিমিটার নিচে তিস্তার পানি 

নীলফামারী: উজানের পানি প্রবাহ বিপৎসীমার ২৮ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় তিস্তা নদীর পানি নীলফামারী ডালিয়া পয়েন্টে বিপৎসীমার ২৮ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

ওই পয়েন্টে বিপৎসীমা ৫২ দশমিক ৬০ সেন্টিমিটার।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) গেজ পাঠক (পানি পরিমাপক) নুরুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

অপরদিকে, বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টায় বিপৎসীমার ২৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছিল। এ সময় ভয়াবহ ঢলের আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিল তিস্তা পাড়ের মানুষ।

পাউবোর উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পানি শাখা) আমিনুর রশিদ জানান, ভারতের পাহাড়ি ঢল ও উজানের ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে তিস্তা নদীর পানি উঠানামায় ডালিয়া পয়েন্টে বন্যা দেখা দেয়।

ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সর্তকীকরণ কেন্দ্র জানায়, দুপুর ১২টার পরিমাপে তিস্তার পানি বিপৎসীমার ২৮ সেন্টিমিটার নিচে নেমে এসেছে। ফলে তিস্তার বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি ঘটেছে। স্বস্তিও ফিরে পেয়েছে কয়েকবারে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ। তবে সপ্তাহব্যাপী টানা বৃষ্টিপাতের ফলে জনজীবন নাকাল হয়ে পড়েছে।  

ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম জানান, উজানের পানি প্রবাহ একটু কমে আসায় সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত বিপৎসীমার (৫২ দশমিক ৬০) ২৮ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে পানি প্রবাহ হচ্ছে।  

তিনি জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার ওই পয়েন্টে সকাল ৯টায় বিপৎসীমার ২৭ সেন্টিমিটার ওপরে ছিল। ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তার পানি বিপৎসীমার নিচে নামলেও বন্যা পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যারাজের ৪৪ স্লুইচ গেট (জলকপাট) খুলে রাখা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০১০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa