ঢাকা, শুক্রবার, ৮ কার্তিক ১৪২৭, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জাতীয়

গাইবান্ধায় গৃহকর্মী ধর্ষণ মামলায় শিক্ষক কারাগারে

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৩৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০
গাইবান্ধায় গৃহকর্মী ধর্ষণ মামলায় শিক্ষক কারাগারে প্রতীকী ছবি

গাইবান্ধা: গাইবান্ধায় গৃহকর্মী ধর্ষণের মামলায় ইউনুস আলী (৫০) নামে এক শিক্ষককে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে গাইবান্ধা চিফ জুডিশিয়াল মেজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক প্রদীপ কুমার রায় আসামির জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

 

হাইকোর্ট থেকে পাওয়া তিন সপ্তাহের জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় ইউনুস আলী এর আগে দুপুরে ফের গাইবান্ধা আদালতে জামিন আবেদন করেন।  

অভিযুক্ত ইউনুস আলী গাইবান্ধা সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। তার বাড়ি সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তারাপুর ইউনিয়নের নওহাটী গ্রামে। তবে পরিবার নিয়ে গাইবান্ধা জেলা শহরের থানাপাড়ায় নিজ বাসায় বসবাস করেন তিনি।  

উল্লেখ্য, বাসার কিশোরী গৃহকর্মীকে (১৫) ধর্ষণের অভিযোগে চলতি বছরের ৯ জুন রাতে গাইবান্ধা সদর থানায় ইউনুস আলীর বিরুদ্ধে মামলা করেন কিশোরীর দাদি। এরপর থেকেই আসামি ইউনুস আলী পলাতক ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০
এসআই

: গাইবান্ধায় গৃহকর্মী ধর্ষণের মামলায় ইউনুস আলী (৫০) নামে এক শিক্ষককে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে গাইবান্ধা চিফ জুডিশিয়াল মেজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক প্রদীপ কুমার রায় আসামির জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।  

হাইকোর্ট থেকে পাওয়া তিন সপ্তাহের জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় ইউনুস আলী এর আগে দুপুরে ফের গাইবান্ধা আদালতে জামিন আবেদন করেন।  

অভিযুক্ত ইউনুস আলী গাইবান্ধা সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। তার বাড়ি সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তারাপুর ইউনিয়নের নওহাটী গ্রামে। তবে পরিবার নিয়ে গাইবান্ধা জেলা শহরের থানাপাড়ায় নিজ বাসায় বসবাস করেন তিনি।  

উল্লেখ্য, বাসার কিশোরী গৃহকর্মীকে (১৫) ধর্ষণের অভিযোগে চলতি বছরের ৯ জুন রাতে গাইবান্ধা সদর থানায় ইউনুস আলীর বিরুদ্ধে মামলা করেন কিশোরীর দাদি। এরপর থেকেই আসামি ইউনুস আলী পলাতক ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa